fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

এগারো দফা দাবিতে কোলাঘাটের বিডিওকে বিক্ষোভ ডেপুটেশন SUCI এর

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক : পরিযায়ী শ্রমিক সহ জবকার্ড হোল্ডারদের একশো দিনের কাজ আরো বেশি বেশি করে দিতে হবে। সেইসাথে সরকারি সহায়কমূল্যে ধান ক্রয় এবং ভর্তুকিতে আমনবীজ ধান বিক্রয় কেন্দ্র গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় চালু করতে হবে এবং সমস্ত গরিব মানুষকে বাংলা আবাস যোজনায় গৃহ বাবদ অনুদান দিতে হবে। এরকম এগারো দফা দাবিতে ডেপুটেশন ছিল কোলাঘাট বিডিওর কাছে। নেতৃত্ব দেন ব্লক কমিটির পক্ষে মধুসূদন বেরা, নারায়ণ চন্দ্র নায়ক, বিশ্বরূপ অধিকারী, শঙ্কর মালাকার প্রমুখ।

নারায়ণবাবু অভিযোগ করেন, আমফানের গৃহবাবদ ক্ষতিপূরনের টাকা এমন অনেককেই দেওয়া হয়েছে, যাঁদের পাকা বাড়ি রয়েছে। কোনও ক্ষয়ক্ষতিই হয়নি। দুর্নীতি দলবাজী এবং স্বজন পোষণ বন্ধ করে আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত গৃহ মালিকদের অনুদান বণ্টন সহ ওই তালিকা গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে টাঙ্গানো বাধ্যতামূলক করা হোক। ধান, পান, ফুল, মাছ, সব্জীচাষীদের অবিলম্বে ক্ষতিপূরণ প্রদান করতে হবে রাজনৈতিক রঙ না দেখেই। মেচগ্রামে অ্যাম্বুলেন্স দুর্ঘটনায় মৃত অ্যাম্বুলেন্স চালক ও কোভিড-১৯ রোগির পরিবারকে উপযুক্ত সাহায্য প্রদান করতে হবে সরকারকেই।

বর্ষার আগেই সমস্ত খানাখন্দে ভরা গ্রামীণ রাস্তাগুলি সংস্কার, সেচ দপ্তরের নিকাশী খালে পড়ে থাকা সমস্ত গাছ অবিলম্বে তুলে ফেলা, দিল্লি মহারাষ্ট্র ইত্যাদি সংক্রামিত রাজ্য থেকে আসা সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিককে দ্রুত কোরোনা টেস্ট করানো সহ ১১ দফা দাবি ছিল এস ইউ সি আই (কমিউনিস্ট) দলের। কোলাঘাটের বিডিও দাবিগুলির যৌক্তিকতা স্বীকার করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন।

Related Articles

Back to top button
Close