fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শয্যাশায়ী পক্ষাঘাতগ্রস্ত স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী বৃদ্ধ স্বামী

মনোজ চক্রবর্তী, হাওড়া: ১২ বছর ধরে বিছানায় শয্যাশায়ী পক্ষাঘাতগ্রস্ত স্ত্রী। স্ত্রীর রোগ যন্ত্রণা প্রতিদিনই কুড়ে কুড়ে খেত ৮০ বছরের বৃদ্ধ ধনঞ্জয় দাসকে। আর সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে থেকে হয়তো একসময় অন্তিম পরিণতির সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন ধনঞ্জয়বাবু।
প্রতিনিয়ত স্ত্রী এই মৃত্যু যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী হলেন বৃদ্ধ ধনঞ্জয় দাস।।চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার সালকিয়া এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে সালকিয়া হরগঞ্জ বাজারে ফুলের দোকানের মালিক ধনঞ্জয় দাস (৮0) স্ত্রী এবং সন্তান নিয়ে নিজের বাড়িতেই থাকতেন। গত ১২ বছর ধরে তার স্ত্রী বাসন্তী দাস(৭০) পক্ষাঘাতের কারণে বিছানায় শয্যাশায়ী ছিলেন। স্ত্রীকে নিয়মিত সেবা শুশ্রুষা ও করতেন ধনঞ্জয়বাবু। বুধবার রাতে তার ছেলে তাপস দাস অফিস থেকে ঘরে ফিরে দেখেন তার বাবার ঘরের দরজা বন্ধ। ঘরের ভেতর অন্ধকার। দরজা খুলে তিনি দেখেন তার মা বিছানায় মৃত অবস্থায় শুয়ে আছেন। আর বাবা সিলিং ফ্যান থেকে গলায় দড়ি লাগানো অবস্থায় ঝুলছে। এরপর তিনি বাড়ির লোকেদের খবর দেন। ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। পরে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে মালিপাঁচঘড়া থানার পুলিশ। মৃতদেহ দুটি উদ্ধারের পর বিছানা থেকে উদ্ধার করে একটি সুইসাইড নোটও। পুলিশ আপাতত একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে।

আরও পড়ুন: প্রতিশ্রুতি রাখলেন ট্রাম্প… ফের ১০০টি উন্নতমানের ভেন্টিলেটর তুলে দেওয়া হল ভারতের হাতে

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান স্ত্রীর অসুস্থতার কারণে ওই বৃদ্ধ দীর্ঘ দিন মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। করোনার জেরে লকডাউনের ফলে ঘরে বসে থেকে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে এই এই ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে ও মনে করছে পুলিশ। এই ঘটনার জেরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

Related Articles

Back to top button
Close