fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সৎমায়ের কাছে অপমানিত হয়ে গঙ্গায় ঝাঁপ তরুণীর

দিব্যেন্দু রায়, কাটোয়া: সৎমায়ের কাছে অপমানিত হয়ে কাটোয়ার গঙ্গায় ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্ঠা করেছিলেন এক তরুণী। কিন্তু শেষ পর্যন্ত স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশের তৎপরতায় প্রান রক্ষা হল তাঁর। কাটোয়ার গোয়ালপাড়া ঘাটের কাছ থেকে মামনি মুর্মু নামে বছর আঠারোর ওই তরুণীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। পুলিশের  কাছে খবর পেয়ে তরুণীর বাবা বুধবার কাটোয়া থানা থেকে মেয়েকে ফিরিয়ে নিয়ে যায়।

জানা গেছে, ভাতার থানার ঝুঝকোডাঙ্গা গ্রামে বাড়ি  মামনি মুর্মুর। তাঁরা দুই বোন। সে ছোট। মামনির দিদির বিয়ে হয়ে গেছে। বছর চারেক আগে পড়াশোনা ছেড়ে দিয়েছে মামনি। তারপর থেকে মাঝে মাঝে তিনি মাঠে দিনমজুরের কাজ করত। মামনির বাবা মদন মুর্মু পেশায় দিনমজুর।  মামনির  জন্মের দু’চার বছর পরেই তাঁদের মা মারা যায়। তারপর  দ্বিতীয় বিবাহ করে মদনবাবু।

[আরও পড়ুন- ভাটপাড়ার আর্যসমাজ মোড়ে প্রকাশ্যে শ্যুট আউট, গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী]

স্থানীয় ও পরিবার সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে গ্রামের দোকানে রান্নার মশলা কিনতে গিয়েছিল মামনি। সেসময় তাড়াহুড়োর মাথায় সে সৎমায়ের চটিজোড়া পড়েই চলে যায়। ফিরে আসার পর তাঁর সৎমা এনিয়ে বেশ কিছু অপমানসূচক কথা বলে। সেই কারনে রাগ করে বাড়ি থেকে পালিয়ে কাটোয়ায় চলে আসেন মামনি।

এরপর কাটোয়ার গোয়ালপাড়া ঘাটের কাছে ওই তরুণী ঘোরাঘুরি করছিল। আচমকাই সে নদীতে ঝাঁপ দেয়। সেইসময় ওই স্থান দিয়ে কয়েকজন পুলিশকর্মী যাচ্ছিলেন। তাঁদের নজরে আসে বিষয়টি। শেষে ওই তরুণীকে গঙ্গার জল থেকে ঘাটে তুলে আনে পুলিশ। তাঁর পরিচয় জানার পর বাড়িতে খবর দেওয়া হয়।

 

Related Articles

Back to top button
Close