fbpx
কলকাতাহেডলাইন

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সীমা আছে সরকারের কিন্তু বিজ্ঞাপন এবং প্রচারের কোনও সীমা নেই, কটাক্ষ সুজনের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করার সীমা আছে সরকারের কিন্তু বিজ্ঞাপন এবং প্রচারের কোন সীমা নেই। এই সংকটের পরিস্থিতিতেও মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আত্মপ্রচারের অভিযোগ তুললেন বাম পরিষদীয় দলনেতা তথা সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী।

সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক বার্তায় বলেন, ‘লক্ষ লক্ষ মানুষকে কোয়ারান্টিনে পাঠানো সম্ভব নয়, সরকারের নিজস্ব সীমাবদ্ধতা রয়েছে, তাই পজিটিভ হলেও বাড়িতেই থাকুন, হোম কোয়ারান্টিন ইজ দ্য বেস্ট’।

মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীর সেই কথার প্রসঙ্গ টেনে সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী ভাষণ দিলেই যে সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের কথা বলেন, সেইগুলোর হাল কি রকম? আসলে মুখ থুবড়ে পড়ছে সরকারি স্বাস্থ্যব্যবস্থা, জেলায় জেলায় বহু অভিযোগ। লক্ষ লক্ষ টাকা বেসরকারি হাসপাতালের চার্জ। গরীব মানুষগুলো যাবে কোথায় ? এই অবস্থায় সরকার স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলতে চাইছে। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, করোনা মোকাবিলায় সরকারের সীমাবদ্ধতা যেটা বলা হচ্ছে, আত্মপ্রচার বা বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে সেই সীমাবদ্ধতা কার্যকর করা হচ্ছে না কেন? যে টাকা বিজ্ঞাপনে খরচ হচ্ছে সেটা বাদ দিয়ে  গরিব মানুষের জন্য খাদ্য ও চিকিৎসা করার জন্য ব্যায় করতে পারে সরকার। কিন্তু তা না করে শুধুই সীমাহীন বিজ্ঞাপন আর আত্মপ্রচার চলছে। এটা চলতে পারে না।’

Related Articles

Back to top button
Close