fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আমফান বিধ্বস্ত সুন্দরবনে পরিশুদ্ধ পানীয় জল পেয়ে খুশি সাধারণ মানুষ

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: বসিরহাট মহকুমার সুন্দরবনের হিঙ্গলগঞ্জ ব্লকে রাজ্য সরকারের জনস্বাস্থ‍্য ও কারিগরি বিভাগে সাতাশটি পরিশুদ্ধ পানীয় জলের কাউন্টার তৈরি করা হয়েছে। ২৭ কোটি টাকা ব‍্যায়ে এই কাউন্টার তৈরী হয়। প্রায় লক্ষাধিক সুন্দরবনবাসী এই জলের পরিষেবা পাচ্ছে।

মাটির নীচে মিষ্টি জল পর্যাপ্ত পরিমানে না থাকায় নদীর নোনা জল ও পুকুরের জল‌ আধুনিক প্রযুক্তির মধ‍্য দিয়ে শোধন করা হচ্ছে। এই বিশুদ্ধ জল এক লিটার তৈরী করতে সরকারের খরচ হয় সাত টাকা। সেই জল রাজ্য সরকার সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সুন্দরবনের মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছে। হিঙ্গলগঞ্জ ব্লকের দুলদুলি, সাহেব খালি, যোগেশগঞ্জ, গোবিন্দকাটি পঞ্চায়েতের মানুষ আর্সেনিক মুক্ত এই জলের পরিষেবা পাবে। আমফানের সময় এই পানীয় জলের কাউন্টারগুলি ঠিকমতো কাজ করতে পারিনি।

তার একটাই কারণ ঝড়ের তাণ্ডবে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় সুন্দরবনের বিভিন্ন প্রান্তে। যার কারণে এই জলের পরিষেবা থেকে বঞ্চিত ছিল তারা। তারপর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় প্রতিটি জলের কাউন্টারে একটি করে জেনারেটরের ব্যবস্থা করা হবে। যাতে মানুষ দিনরাত জলের পরিষেবা পায়। হিঙ্গলগঞ্জের বিধায়ক দেবেশ মন্ডলের উদ্যোগেই এই ২৭টি প্রতিশ্রুত পানীয় জলের কাউন্টার করা হয়েছে। সুন্দরবনের মানুষ স্বাধীনতার পর থেকেই পানীয় জলের সমস্যায় ছিল। প্রায়ই শোনা যেত জলের জন্য তিন থেকে চার কিলোমিটার দীর্ঘ পথ পেরোতে হতো। কিন্তু বর্তমানে এই জল পেয়ে খুশি সুন্দরবনের মানুষ।

Related Articles

Back to top button
Close