fbpx
দেশহেডলাইন

আক্রান্তদের চিকি‍ৎসায় নজরদারির জন্য ক্যামেরা লাগানোর নির্দেশ সুপ্রিমের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার গ্রাসে গোটা দেশ।  আর সেই সুযোগ নিচ্ছে বেসরকারি হাসপাতাল ও পরীক্ষাগারগুলি। দেশের বিভিন্ন রাজ্যে করোনা পরীক্ষা বাবদ খুশিমতো টাকা নেওয়া হচ্ছে। করোনা পরীক্ষার জন্য কোথাও ২৮০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে, কোথাও ৪৫০০ টাকা আবার কোথাও পিলে চমকে ওঠার মতো টাকা নেওয়া হচ্ছে। বেসরকারি হাসপাতালের লাগামছাড়া টাকা আদায় বন্ধ করতে এবার এগিয়ে এলো দেশের শীর্ষ আদালত।

শুক্রবার শীর্ষ আদালতরের ডিভিশন বেঞ্চ গোটা দেশজুড়ে করোনা পরীক্ষার জন্য অভিন্ন রেট চালুর জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে। সেই সঙ্গে কোভিড হাসপাতালের প্রতিটি ওয়ার্ডে আক্রান্তদের কেমন চিকি‍ৎসা হচ্ছে, তা নজরদারির জন্য ক্যামেরা লাগানোর নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।  শীর্ষ আদালতের বিচারপতি অশোক ভূষণ, বিচারপতি সঞ্জয় কিষেণ কাউল ও বিচারপতি এম আর শাহের ডিভিশন বেঞ্চ এদিন করোনা পরীক্ষার নামে বিভিন্ন রাজ্যে লাগামছাড়া টাকা নেওয়া নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন।  কেন্দ্রের পক্ষে উপস্থিত সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতাকে লক্ষ্য করে বিচারপতি অশোক ভূষণ বলেন, ‘কোন রাজ্যে করোনা পরীক্ষার জন্য ২২০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে, কোন রাজ্যে আবার ৪৫০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। কোনও সামঞ্জস্য নেই। গোটা দেশজুড়ে করোনা পরীক্ষার রেট নিয়ে সামঞ্জস্য থাকা উচিত।

আরও পড়ুন: ‘গলওয়ান উপত্যকা চিরকাল ভারতেরই অংশ, চিন তা কোনওভাবেই ছিনিয়ে নিতে পারবে না’, বক্তব্য রাসুল গলওয়ানের নাতির

সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বিষয়টি নিয়ে করোনা পরীক্ষার ‘রেট’ নির্দিষ্ট করার বিষয়টি রাজ্য সরকারগুলির হাতে ছেড়ে দেওয়ার জন্য সওয়াল করেছিলেন। তাঁর বক্তব্য ছিল, ‘বিষয়টি রাজ্য সরকারের উপরে ছেড়ে দেওয়া ভাল। আলোচনা করে যতটা সম্ভব কম রেট করতে পারবে।’ যদিও সলিসিটর জেনারেলের সেই প্রস্তাব নাকচ করে দিয়ে ডিভিশন বেঞ্চ বলেছে, ‘আপনি সর্বোচ্চ রেট নির্দিষ্ট করুন। বাকি কাজটা রাজ্য সরকার করবে।’

Related Articles

Back to top button
Close