fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

কাবুলের জামে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় নয়া মোড়, দায় অস্বীকার তালিবানের

কাবুল, (সংবাদ সংস্থা): কাবুলের উজির আকবর খান জামে মসজিদের আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে মসজিদের ইমামকে হত্যার দায় অস্বীকার করেছে তালিবান। যেখানে এই হামলার জন্য তালেবানকে নিশানা করেছিল আফগানিস্তানের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ।

 

এক বিবৃতিতে তালিবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ জানিয়েছেন, ‘উজির আকবর খান জামে মসজিদের ইমাম মৌলভি মোহাম্মদ আইয়াজ নিয়াজির হত্যাকাণ্ডে আমরা দুঃখিত। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তালিবানের কোনো সম্পর্ক নেই।’

 

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কাবুলের কূটনৈতিক পাড়ায় অবস্থিত উজির আকবর খান মসজিদে সন্ত্রাসী বোমা হামলায় মৌলভি নিয়াজিসহ দু’জন নিহত ও অপর তিনজন আহত হন। ওই ঘটনার পর আফগানিস্তানের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহ ওই হামলার জন্য তালিবানকে দায়ী করে বলেছিলেন, ‘তালিবান আফগানিস্তানের বহু আলেম, মসজিদের ইমাম, ধর্মী, রাজনৈতিক ও জাতিগত নেতাকে হত্যা করেছে।’ প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনিসহ বহু শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিবিদও এই হামলার নিন্দা করেছেন। তবে এখন পর্যন্ত কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী ওই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেনি।

 

সম্প্রতি আফগানিস্তানে যুদ্ধবিরতি শেষ হয়ে যাওয়ার পর তালিবান আফগান সরকারের সঙ্গে এর মেয়াদ নবায়ন করতে অসম্মতি জানায়। এরপর থেকে দেশটির বিভিন্ন এলাকায় এই গোষ্ঠীর হামলা বেড়ে গেছে। তবে, শুধু তালিবান নয়, আফগানিস্তানে সক্রিয় হয়ে উঠেছে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। গত ৩১ মে আইএস জঙ্গিরা কাবুল ভিত্তিক এক টেলিভিশন চ্যানেলের গাড়িতে শক্তিশালী বোমা হামলা ঘটায় আইএস। ঘটনাস্থলেই মারা যান এক সাংবাদিকসহ দু’জন। আহত হন আরও ৭ জন সংবাদ কর্মী। পরে এক বিবৃতিতে এই হামলার দায় স্বীকার করে জঙ্গি সংগঠন আইএস। কিন্তু, তিন দিন অতিক্রান্ত হওয়ার পরেও কাবুলের উজির আকবর খান জামে মসজিদে আত্মঘাতী হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনও গোষ্ঠী।

Related Articles

Back to top button
Close