fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

আফগানিস্তানে মসজিদ ও স্কুল ধ্বংস তালিবানের, উষ্মা প্রকাশে ‘সিগার’

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: আমেরিকার সঙ্গ শান্তি চুক্তিকে উপেক্ষা করে আফগানিস্তানের বাগদিস প্রদেশে মসজিদ ও বালিকা বিদ্যালয় ধ্বংস করেছে উগ্র গোষ্ঠী তালিবান।

বাগদিসের প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য বাহাউদ্দিন কাদিসি বলেছেন, কাদিসি এলাকার একটি বালিকা বিদ্যালয়ে আগুন দিয়েছে তালিবান সন্ত্রাসীরা। এছাড়া তালেবান সদস্যরা বাল্‌খ এলাকায় একটি মসজিদ ও বালিকা বিদ্যালয় রকেট ও মর্টারের সাহায্যে ধ্বংস করেছে বলে জানিয়েছে আফগান সেনাবাহিনী। সেইসঙ্গে, সেনাবাহিনীর মিডিয়া সেলের প্রধান হানিফ রেযায়ি দাবি করেছেন, তালিবান সন্ত্রাসীরা মসজিদটি ধ্বংসের পর প্রচার চালায়- সরকারি বাহিনী এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত রয়েছে। কিন্তু সেনাবাহিনী এই ঘটনা ঘটায় নি।

সেনাবাহিনীর এই কর্মকর্তা আরও বলেন, তালিবানের হামলার শিকার মসজিদ ও বিদ্যালয়ের সঙ্গে জড়িত একজন কর্মকর্তা সম্প্রতি তালিবানকে অন্তত রমজান মাসে সংঘাত ও সহিংসতা বন্ধ রাখার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তার ওই আহ্বানের পরই এই ধ্বংসযজ্ঞ চালায়।

আরও পড়ুন: এক সপ্তাহে ২০০-র বেশি করোনা রোগীকে সুস্থ করে নজির এমআরবাঙুর হাসপাতালের

তালিবান সদস্যরা হেরাত ও গুর এলাকার মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী একটি ব্রিজও ধ্বংস করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।সম্প্রতি তালিবান বিভিন্ন স্থানে হামলা বৃদ্ধি করেছে। এর আগেও বহু স্কুল ধ্বংস করেছে তারা।

অন্যদিকে, আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের নজরদারি সংস্থা ও আফগানিস্তানের পুণঃনির্মাণের জন্য বিশেষ কমিটি ‘সিগার’ (SIGAR) বলেছে, পশ্চিমী সামরিক কর্মকর্তারা আফগানিস্তানে জঙ্গি হামলা সম্পর্কে কিছু উপাত্ত বা ডেটা প্রকাশ না করায়, সে দেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতির মূল্যায়ন করা খুব কঠিন হয়ে পড়ছে। ফেব্রুয়ারি মাসে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র এবং তালিবানের মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতা চুক্তি সত্বেও, কাবুলে অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব এবং তালিবানের সহিংসতার ক্রমবিস্তার শান্তির সম্ভাবনা কমিয়ে দিচ্ছে। তবে, ‘সিগার’ এর মহাপরিচালক জন সমকো জানিয়েছেন, ‘চুক্তি সই করার পর তালিবান সাধারণ ভাবে জোট বাহিনীর উপর আক্রমণ চালানো থেকে বিরত থাকছে। তবে, তারা আফগান জাতীয় প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে আক্রমণ বাড়িয়েছে।’

Related Articles

Back to top button
Close