fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রেঁধে খাওয়ালেন তাম্রলিপ্ত পৌরসভার ভাইস-চেয়ারম্যান

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক : তিনি তাম্রলিপ্ত পৌরসভার ভাইস-চেয়ারম্যান। তিনি পূর্ব মেদিনীপুর জেলা রেড ক্রস সোসাইটির সম্পাদক। তিনি তৃণমূলের জেলা পদাধিকারী দীপেন্দ্রনারায়ণ রায়। আপাদমস্তক সজ্জন শিক্ষিত এই মানুষটি নিজেই এদিন খাওয়ালেন প্রায় ৬০০ পরিবারের দু হাজার মানুষকে। লক ডাউনের বাজারে এতোদিন শুকনো খাবার বিলি করতেন। আজ রেঁধে খাওয়ালেন পৌরসভার ৬, ৮, ৯, ১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের।

 

 

ঐতিহ্যের দিক থেকেও তিনি অনন্য। বিশ্বের দ্বিতীয় প্রাচীনতম রাজবংশ তাম্রলিপ্ত রাজবংশের প্রতিনিধি তিনি। স্বনামধন্য লেখকও। এহেন মানুষটি এই কোরোনা এবং আমফান উদ্ভুত পরিস্থিতিতে সাধারণ গরিব মানুষদের রান্না করা খাবার বিলি করলেন নিজ হাতে। এর আগে বিলি করেছেন ত্রিপল, চাল, আলু, মশলা, কাপড় সহ নানা ধরনের জিনিস। এদিন একদমই অন্যরকম বিষয়। সস্ত্রিক দাঁড়িয়ে থেকে পরিবেশন দেখাশোনা করেন তিনি।

 

 

দীপেন্দ্রনারায়ণ রায় বলেন, সাধ অনেক, কিন্তু সাধ্য সীমিত। তবুও এক বেলার জন্য মানুষজনকে এই রান্না করা খাবার খাওয়াতে পেরে খুশি। সকাল দশটা থেকেই রাজবাড়ির আটচালায় দেওয়া শুরু হয় ভাত, ডাল, চাটনি, তরকারি। নিয়ম মেনে লাইনে দাঁড়িয়ে মানুষজন প্রয়োজনমতো খাবার সংগ্রহ করে। আসলে জামাইষষ্ঠীর আগে একটু সবাই মিলে একসাথে ভোজন হোলো পৌরসভার মানুষদের।

 

 

এখানে জেলা রেড ক্রসের পক্ষ থেকে প্রত্যেকের হাত স্যানিটাইজড করার ব্যবস্থা করা ছিলো। মাস্ক পরে নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনেই বিলি করা হয় খাবার। স্বভাবতই খুশি ওয়ার্ডের লোকজন।

Related Articles

Back to top button
Close