fbpx
আন্তর্জাতিকবাংলাদেশহেডলাইন

আমফানের তান্ডবে ক্ষয়ক্ষতিতে উপকূলের মানুষের দুর্দশায় উদ্বেগ তারেক রহমানের

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন, ঢাকা : ঘূর্ণিঝড় ‌আম্পানের তান্ডবে উপকূলীয় জেলায় ১০ জনের জীবনহানী এবং বসতবাড়ী, গবাদি পশু, সরকারি বেসরকারী প্রতিষ্ঠান ও ফসলী জমির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিতে উপদ্রুত এলাকার অসহায় মানুষের দুর্দশায় উদ্বেগ এবং মানুষের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশে প্রধান বিরোধী দল বিএনপির অস্থায়ী চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

 

 

বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে লন্ডনে নির্বাসিত তারেক রহমান বলেন, ‌‌গতকাল (বুধবার) সুপার সাইক্লোন আম্পানে বাংলাদেশের উপকুল অতিক্রম করার সময় সাতক্ষীরাসহ কয়েকটি এলাকায় ব্যাপক তান্ডব চালিয়েছে। আম্পানে আঘাতে নদীর বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে বাঁধ ভেঙ্গে গ্রামগুলোকে ক্রমান্বয়ে তলিয়ে দিচ্ছে। মানুষের প্রাণহানী ছাড়াও হাজার হাজার কাঁচা বাড়ি-ঘর বিধ্বস্ত, সহায়-সম্পত্তি, গাছপালা, চিংড়ী ঘের ও ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিতে বিপন্ন মানুষদের প্রতি আমি গভীরভাবে সমব্যাথী।

 

 

তিনি বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগে মৃত্যুবরণকারীদের পরিবার-পরিজন এবং দু:খ দুর্দশায় পতিত বেঁচে থাকা মানুষদের সহানুভূতি জানানোর ভাষা আমার জানা নেই। উপদ্রুত এলাকায় বেঁচে থাকার জন্য খাদ্য, সুপেয় জল ও ঔষুধের তীব্র সংকটে মানুষ চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছে। এই রকম দুর্যোগময় পরিস্থিতির পূর্বাভাস জেনেও উপকুলীয় এলাকার মানুষসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিতে তেমন কোন উদ্যোগ লক্ষ্য করা যায়নি।

 

 

খালেদাপুত্র বলেন, একদিকে করোনা ভাইরাসের আঘাতে বাংলাদেশসহ সারা পৃথিবীতে বয়ে চলছে ভীতি আতঙ্কের প্রবাহ। প্রতিনিয়ত করোনায় মৃত্যু ও অসুস্থতা মানুষকে তাড়া করছে, এর ওপর ঘুর্ণিঝড়ের করাল গ্রাসে উপকুলবাসীরা এখন বিপর্যস্ত ও দিশেহারা। ঘুর্ণিঝড় কবলিত এলাকার মানুষের সাহায্যার্থে দ্রুত উদ্যোগ গ্রহণ করা অত্যন্ত জরুরি। আমি ঘুর্ণিঝড় আক্রান্ত উপকুলীয় মানুষদের ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার জন্য বিএনপি’র সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীসহ দলমত নির্বিশেষে সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানাচ্ছি।

 

 

তিনি আরও বলেন, বিএনপি এই ধরণের গুরুতর সংকটে সবসময়ই অসহায় মানুষের পাশে থাকবে। বাংলাদেশের মানুষ যুগযুগ ধরে প্রাকৃতিক দুর্যোগ সামাল দিয়ে আবারও নতুন উদ্যোমে কাজ শুরু করেছে। এবারেও শত প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে ঘুর্ণিঝড় কবলিত সংশ্লিষ্ট জেলাগুলোর উপদ্রুত মানুষ সংকট নিরসনে সক্ষম হয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। ঘুর্ণিঝড়ে নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং আহতদের আশু সুস্থতা কামনা করছি।”

Related Articles

Back to top button
Close