fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

কোভিড বিধি মেনে কলকাতার গঙ্গার ঘাটে হবে তর্পণ, থাকছে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার আবহে আজ সবই পরিবর্তনের পথে। যেগুলো আগে স্বাভাবিক বলে মানা হত আজ সবই পরিস্থিতি পালটে গেছে। মানুষের জীবন আজ একটা নির্দিষ্ট গণ্ডির মধ্যে সীমাবদ্ধ। সেই অবস্থার সঙ্গে তাল মিলিয়ে পরিবর্তন হচ্ছে পুজো পার্বণের দিনগুলি। আর দুদিন পরেই মহালয়া। অন্যবার মহালয়ার দিনগুলিত ভোর থেকে তর্পণ শুরু হয়ে যায়। তবে এবার করোনার দাপটে সেই নিয়মে পরিবর্তন হয়েছে।

প্রতি বছর মহালয়ার দিন ভোর থেকে দক্ষিণেরশ্বরে মানুষের ভিড় জমাতে শুরু করে। তর্পণ শুরু হয়ে যায় ভোর থেকে। বেলা পর্যন্ত দক্ষিণেশ্বরের ঘাটে ঘাটে ভিড় জমান হাজার হাজার মানুষ। তবে এবার সেই দৃশ্য চোখে পড়বে না। কারণ মন্দির কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার দক্ষিণেশ্বর ঘাটগুলিতে কাউকে তর্পণ করতে দেওয়া যাবে না। মন্দির দুপুর সাড়ে তিনটে পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

তবে কলকাতার গঙ্গার ঘাটে তর্পণ হবে। কলকাতা পুলিশ জানিয়ে দিল মহালয়ার দিন গঙ্গার ঘাটে ঘাটে তর্পণের যে ব্যবস্থা থাকবে এই বছরও তা থাকবে। তবে সকলকে কোভিড বিধি মেনে সমস্ত কাজ করতে হবে।

আরও পড়ুন:নবজাগরণের বাংলা আজ দুর্নীতির পীঠস্থান

জানা গিয়েছে, আগামী মঙ্গলবার কলকাতা পুরনিগমের সঙ্গে পুজো নিয়ে বৈঠকে বসতে চলেছে কলকাতা পুলিশ। ডাকা হয়েছে দমকল ও সিইএসসিকেও। প্রতি বছরই পুজোর এক-দেড় মাস আগে এই বৈঠক হয়। এই বছর আশ্বিন মাস মল মাস পড়ে যাওয়ায় মহালায়ার ৩৫ দিন বাদে হচ্ছে দুর্গাপুজো। তাই বৈঠকের দিনক্ষণ কিছুটা পিছিয়ে গিয়েছে। মঙ্গলবারের বৈঠকে কলকাতা পুরনিগমের ইঞ্জিনিয়ারদের ছাড়াও রাজ্য সরকারের পূর্ত দফতর, কেএমডিএ, বন্দর এবং এইচআরবিসি’র আধিকারিকদেরও ডাকা হয়েছে। বৈঠক ডেকেছেন পুর প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। সেখানে মহালয়ার তর্পণের বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা হবে। সরকারিভাবে এখনও ঘোষিত না হলেও কোভিড স্বাস্থ্যবিধি মেনে গঙ্গার ঘাটে মহালয়ায় পিতৃতর্পণ নিয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছে কলকাতা পুরনিগম ও পুলিশ।
পাশাপাশি গঙ্গাঘাটে সব রকম সুরক্ষার ব্যবস্থা থাকছে। থাকছে ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট ও ডুবুরি টিম। সেই সঙ্গে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা থাকছে।

Related Articles

Back to top button
Close