fbpx
কলকাতাহেডলাইন

দেশের ইতিহাস না জেনে মন্তব্য করছেন, জ্যোতিপ্রিয়কে তোপ তথাগতর

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: মেঘালয়ের সদ্য প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায় রাজনীতিতে ফিরলে তা অনৈতিক হবে। এমনটাই মন্তব্য করেছিলেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। সোমবার তথাগত রায়ের পাল্টা কটাক্ষ, ‘ দেশের ইতিহাস না জেনে মন্তব্য করলে কী আর বলার আছে।’ রবিবার রাতে শহরে ফেরেন সদ্য প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়। শহরে আসার আগেই তিনি টুইট করে ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন বঙ্গ বিজেপিতে সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরবেন। এ নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা তৈরি হয়।

এই আবহেই জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক মন্তব্য করেন, সাংবিধানিক পদে থাকার রাজনীতিতে ফেরাটা অনৈতিক। সোমবার তথাগত রায় হেস্টিংসে বিজেপির দফতরে কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও মুকুল রায়ের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের মন্তব্য সম্পর্কে বলেন, ‘একজন যদি লেখাপড়া না করে , দেশের ইতিহাস না জেনে মন্তব্য করেন তাহলে কি করবো? অর্জুন সিং আগে পঞ্জাবের রাজ্যপাল ছিলেন, পরে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হন। শীলা দীক্ষিত ও রেকর্ড সময়ের দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। পরে কেরালার রাজ্যপালও হন। মতিলাল ভোরা প্রথমে রাজ্যপাল ছিলেন,পরে এআইসিসির কোষাধ্যক্ষ হন। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক যদি কিছু না জেনে বলেন তাহলে কি বলবো? ‘

আরও পড়ুন: দলে গুরুত্ব কমল রত্নার, শোভনের ‘ঘর ওয়াপসি’র পথকে প্রস্তত করল তৃণমূল

পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় মন্তব্য করেছেন, ‘ একুশে বিজেপির ক্ষমতায় আসা আসলে দিবাস্বপ্ন দেখা। এ সম্পর্কে মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল বলেন, ‘সুব্রত মুখোপাধ্যায় মোটামুটি হাওয়া মোরগের মতো চলেন। উনি যা বলেছেন নেত্রীকে খুশি করার জন্য বলেছেন।’ এদিন তিনি বলেন, ‘ আমাদের প্রথম উদ্দেশ্য নির্বাচনে জেতা। সেই কারণে আমাদের জেতার পথে কি প্রতিবন্ধকতা রয়েছে সেটা আগে জানতে হবে। কোথায় আমাদের শক্তি আছে, কারা আমাদের বিপদে ফেলতে পারে এগুলো পর্যালোচনা করতে হবে। মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচন করবে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। আমাদের দলের কিছু পরম্পরা রয়েছে, আমরা সেই অনুযায়ী চলবো।’

Related Articles

Back to top button
Close