fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

বাংলার ছবি দেখে চোখে জল এসেছে’,মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন রাষ্ট্রপতির

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় আমফানের বিপর্যস্ত পর মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। বিপর্যস্ত বাংলার ছবি দেখে তাঁর চোখে জল এসেছে বলে মুখ্যমন্ত্রীকে ফোনে জানান রামনাথ কোবিন্দ। মুখ্যমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির কথা হয় আমফান নিয়ে। আমফানে বিপর্যস্ত বাংলা। বিশেষ করে দক্ষিণবঙ্গের হাল রীতিমতো বেহাল। প্রচুর ক্ষতক্ষতি হয়ে গিয়েছে। এই দুর্যোগের দিন বাংলার পাশে রয়েছে সকলেই।’ পাশাপাশি, মুখ্যমন্ত্রীকে সবরকম সহযোগিতার আশ্বাসও দেন রাষ্ট্রপতি।

পরিস্থিতি দেখতে রাজ্যে ইতিমধ্যেই এসেছেন প্রধানমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে হেলিকপ্টারে তিনি পরিদর্শন করবেন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা।রাষ্ট্রপতির পাশাপাশি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীও ফোন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রীকে। পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতির খোঁজ নেন তিনি। রাজ্যের প্রায় ৭ কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন এবং মৃত্যু হয়েছে ৮০ জনের, জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পশ্চিমবঙ্গে আমফানের ক্ষয়ক্ষতি জানতে মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তাঁকে ফোনে যত দ্রুত সম্ভব আর্থিক সাহায্য করার আবেদন জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে তিনি বললেন, ৫০০ দিন পরে পেলে লাভ নেই। টাকা এখনই দরকার।

আরও পড়ুন: নেই ইন্টারনেট, মোবাইল পরিষেবা, আমফানের দাপটে বিধ্বস্ত বাংলা

বুধবার ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে তছনছ হয়ে যায় উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, কলকাতা, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি-সহ দক্ষিবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলা। বৃহস্পতিবার সকাল হতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করে ক্ষয়ক্ষতির খোঁজ খবর নিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। পরে টুইটারে তিনি লেখেন, ‘আমরা আমপানের বিষয়টি ভাল ভাবে নজর রাখছি। ঝড়ের তাণ্ডবে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তা নিয়ে ওড়িশা এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর কথা বলেছি। প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি।’

ইতিমধ্যেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করেছেন ওডিশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক। ওডিশাতেও পড়েছে আমফানের প্রভাব। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে এখনও যোগাযোগ সম্ভব হয়নি বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী।

একইসঙ্গে বাংলারদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন করার চেষ্টা করেন বলেই খবর। তিনিও ঘনিষ্ঠমহলে বাংলার এই পরিস্থিতি নিয়ে শোকপ্রকাশ করেছেন। উল্লেখ্য, এই ধরনের ঘূর্ণিঝড় দেখে অভ্যস্ত বাংলাদেশ। ফলে এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবাংলাকে সবরকম সহায়তা করতে রাজি হাসিনার সরকার।

Related Articles

Back to top button
Close