fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রায়গঞ্জে সদ্যজাতের মৃত্যুতে উত্তেজনা 

নিজস্ব সংবাদদাতা, রায়গঞ্জ: চিকিৎসার গাফিলতিতে সদ্যজাত শিশু মৃত্যুর অভিযোগে বুধবার ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে রায়গঞ্জের উকিল পাড়ায় অবস্থিত একটি বেসরকারী নার্সিং হোমে। শারীরিক অবস্থার চরম অবনতি হওয়ায় শম্পা রায় নামে ঐ প্রসুতি মহিলাকে অন্য একটি নার্সিংহোমের আই সি ইউতে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় পরিবাবের সদস্যরা। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, শম্পা রায় নামে রায়গঞ্জের মেহেন্দিগ্রামের গর্ভবতী মহিলাকে গত ২২-শে জুন রায়গঞ্জের উকিলপাড়ার একটি বেসরকারী নার্সিং হোমে ভর্তি করা হয়। বুধবার শম্পাদেবীর সিজার করেন চিকিৎসক টি কে ঘোষ। পরিবারের অভিযোগ সিজার করার আগে দুবার বন্ড পেপারে সই করানো হয় তাদের। ওটি ঢোকানোর প্রায় দেড় ঘন্টা পরে চিকিৎসক জানান শম্পাদেবীর শারীরিক পরিস্থিতি অত্যন্ত খারাপ,উন্নত চিকিৎসার জন্য বাইরে নিয়ে যেতে হবে। সদ্যজাতের হৃদস্পন্দন কিছুটা স্বাভাবিক। হঠাৎই পরিবারের কাউকে কিছু না জানিয়ে এ্যাম্বুলেন্স ডেকে শম্পাদেবীকে এ্যাম্বুলেন্স এ ওঠানোর চেষ্টা করে নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি দেখতে পেয়ে তাতে বাঁধা দেন পরিবারের লোকজন। পরে আবারো শম্পাদেবীকে নার্সিংহোমে নিয়ে আসা হয়। নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষের এই গাফিলতিতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন পরিবারের লোকজন। নার্সিংহোমের সামনের রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তারা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার আই সি সুরজ থাপার নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী। দুপক্ষের আলোচনার পর অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। পরবর্তীতে শম্পাদেবীকে প্বার্শবর্তী একটি নার্সিংহোমের আই সি ইউতে অত্যন্ত সংকট জনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়।

আরও পড়ুন: দিনহাটায় তৃণমূলের মহিলা সংগঠনের বিশেষ সভাদিনহাটায় তৃণমূলের মহিলা সংগঠনের বিশেষ সভা

শম্পাদেবীর পরিবারের অভিযোগ,” চিকিৎসার গাফিলতিতে শিশুর মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি মায়ের অবস্থা ও অত্যন্ত খারাপ। চিকিৎসক ও নার্সিং হোম কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনী পদক্ষেপ গ্রহন করতে হবে।” অন্যদিকে নার্সিং হোমের ম্যানেজার রিন্টু সরকার বলেন,” ওটিতে ঢোকানোর সময় ডাক্তারবাবু বলেছিলেন রোগীর অবস্থা খারাপ,বাইরে নিয়ে যেতে হবে। বন্ডেও সই করেন তারা। কিন্তু রোগীকে বাইরে নিয়ে যেতে রাজী হননি পরিবারের সদস্যরা। ” যদিও এবিষয়ে চিকিৎসক টি কে ঘোষ কে ফোন করা হলেও তাঁর ফোন সুইচড অফ ছিলো।

Related Articles

Back to top button
Close