fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

“আর নয় অন্যায়”, বিজেপির বাইক র‍্যালিকে ঘিরে উদয়নারায়ণপুরে উত্তেজনা

পাপ্পা গুহ, উলুবেড়িয়া: “আর নয় অন্যায়”-ভারতীয় জনতা যুব মোর্চার বাইক র‍্যালিকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়াল উদয়নারাণপুরের চালতাখালি রতনপোতা এলাকায়। বিজেপির অভিযোগ, শুক্রবার বিকালে উদয়নারায়ণপুরে তাদের এই কর্মসূচী চলার সময় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাদের র‍্যালিতে হামলা চালায়। কর্মীদের মারধরের পাশাপাশি বোমাবাজি ও গাড়িতে ভাঙচুর ও চালিয়েছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। যদিও তৃণমূল বিজেপির সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

তৃণমূল সরকারের দূর্নীতি, বিজেপি কর্মীদের মিথ্যা মামলায় ফাসানোর প্রতিবাদে শুক্রবার বিজেপির জনতা যুব মোর্চার উদ্যোগে রাজ্য জুড়ে আর নয় কর্মসূচীতে বাইক র‍্যালির আয়োজন করা হয়েছিল। সেইমতো উদয়নারায়ণপুরেও বাইক র‍্যালির আয়োজন করা হয়েছিল। জানা যায় এদিন বিকালে বিজেপি নেতা ভোলা সামুই, বিজেপির হাওড়া গ্রামীণ জেলার সভ সভাপতি রমেশ সাধুখা, সম্পাদক সুরজিৎ মন্ডল, বিজেপির জনতা যুব মোর্চার জেলার পর্যবেক্ষক বনশ্রী মন্ডলের নেতৃত্বে প্রায় পাঁচ শতাধিক বাইক ও শতাধিক টোটো নিয়ে র‍্যালি শুরু হয়।

বিজেপি নেতাদের অভিযোগ বিকালে উদয়নারায়নপুরের খিলা থেকে র‍্যালি শুরু হয়ে বালিচক সিংটি খোসালপুর হয়ে রাজাপুরের দিকে যাওয়ার পথে চালতাখালি রতনপোতার কাছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাদের র‍্যালিতে হামলা চালানোর পাশাপাশি কর্মীদের মারধর করে। বিজেপি নেতা ভোলা সামুই এর অভিযোগ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা পরিকল্পিত ভাবে তাদের র‍্যালিতে হামলা চালিয়েছে। ঘটনায় তাদের ৪/৫ জন কর্মী আহত হয়েছে বলেও দাবি করেন ভোলা সামুই।

উদয়নারায়ণপুরে বিজেপির র‍্যালিতে হামলা চালানো প্রসঙ্গে বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জয় বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই উদয়নারায়ণপুর জেলার সন্ত্রাসকবলিত এলাকা। তৃণমূলের অত্যাচারে মানুষ দিশাহারা। যদিও বর্তমানে এলাকার মানুষ এই অত্যাচারের হাত থেকে রক্ষা পেতে বিজেপিকে সমর্থন করায় তৃণমূল আতঙ্কিত হয়ে এই কাজ করেছে। যদিও বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করেছে উদয়নারায়ণপুরের বিধায়ক সমীর পাঁজা। তিনি অভিযোগ করেন, এদিন বিজেপির র‍্যালি চলার সময় রতনপোতা গ্রামের কাছে শ্মশান যাত্রীদের সঙ্গে বিজেপি কর্মীদের বচসা বাঁধে। সেইসময় বিজেপি কর্মীরা শশ্মান যাত্রীদের মারধর করে এমনকি তাদের বাঁচাতে আমাদের দলের কর্মীরা আসলে তাদের ও মারধর করে বিজেপি কর্মীরা।

 

সমীর পাঁজা দাবি করেন, বিজেপি কর্মীরা তাদের ১০/১২ জন কর্মীকে মারধর করার পাশাপাশি ৩/৪ টি বড়িতে ও ভাঙচুর চালিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close