fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল মানিলা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল মানিলা। রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ৬.৪। মানিলা থেকে ৪৫১ কিমি দক্ষিণ পূর্বে ছিল এই কম্পনের কেন্দ্রস্থল। এই ভূমিকম্পে এখনও পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কিছু জানা যায়নি। অন্যদিকে চলতি মাসেই ভয়াবহ ভূমিকম্প হয় নর্থ ক্যারোলিনায়। রিখটার স্কেলের ওই কম্পনের মাত্রা ছিল ৫.১। গত ১০০ বছরে নর্থ ক্যারোলিনায় সবথেকে বড় ভূমিকম্প ছিল এটাই।

ভূমিকম্পে ক্ষতি হয় বহু মানুষের। প্রাণহানি হয় অনেক মানুষের।  ভূমিকম্পের আগাম সতর্কবাণী তেমন কিছু থাকে না। ফলে বাড়তে থাকে আতঙ্ক। তাই এবার নয়া উদ্যোগ নিতে চলেছে গুগল। এবার কিছুটা হলেও সেই আতঙ্ক থেকে মুক্তি মিলতে পারে। এই সমস্যার সমাধান করতে এসে গেছে গুগল অ্যানড্রয়েড ফোন। সম্প্রতি অ্যানড্রয়েডের প্রধান সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার মার্ক স্টোগাইটিস এক ব্লগ পোস্টে জানিয়েছেন, “অ্যানড্রয়েড ফোনের মাধ্যমে সহজেই ভূমিকম্প সম্পর্কে সঠিক তথ্য নির্ধারণ করতে পারবে গুগল। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই জানা যাবে সেই তথ্য। গুগল সার্চের মাধ্যমে এই প্রযুক্তির ভূমিকম্পের সঠিক স্থান ম্যাপে দেখানো হবে।

[আরও পড়ুন- এবার ভূমিকম্পের আগাম সতর্কতা জানাবে গুগল]

গুগলের নতুন ফিচারের মাধ্যমে যেকোনও অ্যানড্রয়েড ফোন ‘অ্যানড্রয়েড আর্থ কোয়েক অ্যালার্ট সিস্টেম’ ব্যবহার করে বিশ্বের যে কোনও জায়গার ভূমিকম্প নির্ধারণে সাহায্য করবে। সব স্মার্টফোনেই একটি অ্যাক্সেলেরোমিটার থাকে। এই সেন্সর ব্যবহার করেই ভূমিকম্প নির্ধারণ করবে গুগল। “স্মার্টফোনের সেন্সরে ভূমিকম্পের মতো নড়াচড়া ধরা পড়লে সার্ভারে সিগন্যাল আসবে ফোন থেকে। সঙ্গে সঙ্গে চলে আসবে ফোনের লোকেশন ডেটা। সার্ভার থেকে সেই জায়গায় ভূমিকম্পের খবর পাওয়া গেলে স্মার্টফোনে গ্রাহককে সতর্ক করে দেবে গুগল।” এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া প্রদেশে এই ফিচার নিয়ে এসেছে সার্চ ইঞ্জিন জায়েন্ট কোম্পানিটি। ধীরে ধীরে অন্যত্র ছড়িয়ে পড়বে।

Related Articles

Back to top button
Close