fbpx
অসমগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে লালায় পালিত ২৯তম মণিপুরী ভাষা দিবস

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন, কাটলিছড়া: আসাম মণিপুরী সাহিত্য পরিষদের হাইলাকান্দি জেলা কমিটির উদ্যোগে বৃহস্পতিবার লালার লৈহৌপোকপি কম্যুনিটি হল প্রাঙ্গনে পালিত হল উনত্রিশতম মণিপুরী ভাষা দিবস।
এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে করিমগঞ্জের সাংসদ কৃপানাথ মালাহ অংশ নিয়ে মণিপুরী সম্প্রদায়ের উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন। এদিন সকালে সাহিত্য পরিষদের পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনব্যাপী কার্যসুচির সূচনা করেন পরিষদের প্রাক্তন সভাপতি এইচ মণিসানা সিংহ।

এরপর কবি সম্মেলন, কৃতি ছাত্র ছাত্রী সংবর্ধনা, আলোচনা সভা, প্রকাশ্য অধিবেশন ইত্যাদি কার্যসূচির আয়োজন করা হয়। দেব সিংহ সুব্রামের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত কবি সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে ইন্দিরা সিংহ, পি ননী সিংহ, কে রবীন্দ্র সিংহ, এম নন্দ কুমার সিংহ, জয় সিংহ প্রমুখ অংশ নিয়ে তাদের স্মরচিত কবিতা পাঠ করেন। এদিন দুপুরে মণিপুরী সাহিত্য পরিষদের হাইলাকান্দি জেলা কমিটির উপসভাপতি এল খগেন্দ্র সিংহের পৌরোহিত্যে অনুষ্ঠিত প্রকাশ্য অধিবেশনে সাহিত্য পরিষদের পক্ষ থেকে মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মণিপুরী সমাজের কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের সংবর্ধনা জানানো হয়। কৃতি ছাত্র-ছাত্রী সহ সম্প্রতি অসম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রিধারীকে ভারতী সিংহের হাতে শংসাপত্র সহ উপহার সামগ্রী তুলে দিয়ে সম্মাননা জানান সাংসদ কৃপানাথ মালাহ।

আরও পড়ুন:করোনার বেলাগাম গতিকে আটকাতে পাঞ্জাবে ফের জারি নৈশ কারফিউ

প্রকাশ্য অধিবেশনে অন্যদের মধ্যে সাংসদ কৃপানাথ মালাহ, থৌগন মরূপ সভাপতি কে ননীবাবু সিংহ, শিক্ষাবিদ স্বপন সিংহ , অসেম মণি সিংহ, এ নন্দবাবু সিংহ, আতম্বা সিংহ, ওয়াই সমজিৎ সিংহ, কোনসম রবীন্দ্র সিংহ, চন্দ্রশেখর সিংহ, এইচ বীরেন্দ্র সিংহ, জেলা পরিষদ সদস্য প্রতিনিধি সন্দীপ সিনহা, ইকবাল হোসেন মজুমদার, ড. এম নিংহেইবা সিংহ প্রমুখ অংশ নিয়ে প্রাসঙ্গিক বক্তব্য রাখেন।

মণিপুরী সমাজের প্রত্যেক বক্তাই তাদের ভাষনে তীব্র ক্ষোভ ব্যাক্ত করে বলেন, ১৯৯২ সালের ২০ আগস্ট তারিখে ভারতীয় সংবিধানের অষ্টম তহসিলে মণিপুরী ভাষা অন্তর্ভুক্ত হয়। কিন্ত রহস্যজনকভাবে ২৯ বছর পরও অসম সরকারের এ পি এস সি সহ বিভিন্ন নিযুক্তি, চাকরির বিজ্ঞাপন, পরীক্ষায় মণিপুরী ভাষাকেঅন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। কইজাম স্বপন সিংহ তাঁর ভাষণে সংসদের আগামী অধিবেশনে বিষয়টি লিখিত আকারে উত্থাপন করতে সাংসদ কৃপানাথ মালাহকে অনুরোধ জানান। তিনি মণিপুরী ভাষা নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বৈমাতৃসুলভ আচরণের অভিযোগ করেন। এদিন মণিপুরী সাহিত্য পরিষদের হাইলাকান্দি জেলা কমিটির পক্ষ থেকে অবিলম্বে অসমে মণিপুরী ভাষাকে বিভিন্ন পরীক্ষায় অন্তর্ভুক্ত করতে বিহিত পদক্ষেপ নিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে একটি স্মারকপত্র সাংসদের হাতে তুলে দেন পরিষদের সভাপতি আতম্বা সিংহ ও সম্পাদক কে রবীন্দ্র সিংহ। তাছাড়া হাইলাকান্দির রাজ্যেশ্বরপুরে সাহিত্য পরিষদের ভবন, অতিথিশালা নির্মাণ সহ বিভিন্ন দাবি সম্বলিত একটি স্মারকপত্র সাংসদ কৃপানাথ মালাহকে প্রদান করা হয়।

আরও পড়ুন:ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড তেলেঙ্গানার শ্রীশৈলম জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রে, আটকে ৮ জন

প্রধান অতিথির ভাষনে সাংসদ কৃপানাথ মালাহ , মাতৃভাষার গুরুত্ব তুলে ধরে মণিপুরী সাহিত্য, সংস্কৃতিকে বাঁচিয়ে রাখতে সাহিত্য পরিষদের ভূমিকার প্রশংসা করেন। নিজের মাতৃভাষার স্বীকৃতির জন্য তাদের দাবির প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে এক্ষেত্রে তিনি সবধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন। বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সাংসদদের দুই বছরের এলাকা উন্নয়ন তহবিল কোভিডে ব্যয় হচ্ছে।

যার ফলে সাংসদ হিসেবে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে সাহিত্য পরিষদের ভবন, গেস্ট হাউসের জন্য অর্থ মঞ্জুর করতে না পারলেও খুব শীঘ্রই রাজ্য সরকারের কাছ থেকে অর্থ মঞ্জুর করিয়ে দেবেন। পর্যায়ক্রমে ভবন, সহ অতিথিশালার কাজ হবে বলেও জানান তিনি। মণিপুরী সম্প্রদায়ের মহিলাদের জন্য একটি গার্লস উচ্চতর বিদ্যালয় স্থাপনের বিষয়টিও তিনি রাজ্য সরকারের দৃস্টিগোচর করে বিহিত পদক্ষেপ নেবেন বলেও জানান। থৌগন মরূপ সভাপতিকে ননীবাবু সিংহ তার ভাষণে, মণিপুরী ভাষাকে অসম সরকারের বিভিন্ন নিযুক্তির বিজ্ঞাপনে অন্তর্ভুক্ত করা সহ অসম বিধানসভায় আপার হাউস গঠনের দাবি জানান। এদিনের গোটা অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন পরিষদের সম্পাদক কোনসম রবীন্দ্র সিংহ।

Related Articles

Back to top button
Close