fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতিকে লটারির পুরস্কারের টোপ, যেতে হল হাজতবাসে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি টিবিএন রাধাকৃষ্ণনকে হোয়াটসঅ্যাপে লটারির পুরস্কারের টোপ দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে এক নাইজেরিয়ানকে হাজতবাসে পাঠালেন কলকাতা নগর দায়রা আদালতের বিচারক। ২৮ জুলাই পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন বিচারক।

লালবাজার সাইবের সেল সূত্রে জানা গিয়েছে, গত জুন মাসের ২১ তারিখ কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির মোবাইলে একটি মেসেজ আসে। তাতে বলা হয়, তিনি হোয়াটস-অ্যাপ গ্লোবাল ২০২০তে ২কোটি ৭৫ লাখ টাকার পুরস্কার জিতেছেন। একটি অপরিচিত নম্বর থেকে এই মেসেজটি করা হয়। টাকা পাওয়ার জন্য একটি নির্দিষ্ট মেইল আইডিতে বয়স, মোবাইল নম্বর এবং পেশা জানাতে বলা হয়। এগুলি দেখে সন্দেহ হয় প্রধান বিচারপতির। এরপর একদিন ওই নাইজেরীয় ফোন করে প্রধান বিচারপতিকে। প্রতারক জানায়, এই পুরস্কার নিতে নির্দিষ্ট মেইল আইডিতে তাঁকে যোগাযোগ করতে হবে। এর জন্য কিছু প্রসেসিং ফি এবং অন্যান্য চার্জ দিতে হবে। প্রধান বিচারপতি বুঝতে পারেন, প্রতারক চক্রের কাজ এটি। তিনি উত্তর এড়িয়ে যান এবং তার ফাঁদে পা দেননি। এরপর বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার (ভিজিল্যান্স) অনির্বাণ দাস কলকাতা পুলিসের সাইবার সেলে অভিযোগ জানান।

আরও পড়ুন:অমরনাথ যাত্রায় হামলার ছক কষছে জঙ্গিরা! চাঞ্চল্যকর তথ্য সেনার

সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই তদন্ত শুরু করে সাইবার শাখার গোয়েন্দারা। এক মাসের মধ্যে গোয়েন্দা বিভাগের সাইবার সেলের হাতে ধরা পড়ল এক নাইজেরীয় প্রতারক। সাইমন নামে ওই বিদেশিকে দিল্লি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এদিন কলকাতা নগর দায়রা আদালতে তোলা হলে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। তার বিরুদ্ধে জালিয়াতি প্রতারণা সহ বিভিন্ন ধারাতে মামলা রুজু করা হয়েছে। এর আগে বিভিন্ন ভিভিআইপিদের পুরস্কারের টোপ দিয়ে ফোন করে সে টাকা হাতিয়েছে বলে অভিযোগ।
হাইকোর্টের বিচারপতির ফোন নম্বর সে কোথা থেকে জোগাড় করেছিল, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি এর পিছনে কোনও বড়সড় চক্র কাজ করছে কিনা তা নিয়েও তদন্ত চালাচ্ছে তদন্তকারীরা।

Related Articles

Back to top button
Close