fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা জুড়ে তৃণমূলের পক্ষ থেকে পালন করা হল ‘বঙ্গধ্বনি’ কর্মসূচি

সুদর্শন বেরা, পশ্চিমমেদিনীপুর: শুক্রবার তৃণমূলের পক্ষ থেকে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ১৫টি বিধানসভা এলাকায় বঙ্গধ্বনি কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। প্রতিটি কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের বিধায়ক ও ও নেতৃত্বরা। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার দাঁতন বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত মোহনপুর ব্লকের  গোমুন্ডা বাজারে বঙ্গধ্বনি কর্মসূচির সূচনা করেন দাঁতনের বিধায়ক বিক্রম প্রধান।ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল এর পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ পাত্রসহ দলের  অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। ওই কর্মসূচিতে পাঁচ হাজারেরও বেশি মানুষ সামিল হয়েছিলেন। উপস্থিত সকলের হাতে ২০১১ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত  তৃণমূল পরিচালিত রাজ্য সরকার কি কি উন্নয়নমূলক কাজ করেছে তার খতিয়ান তুলে ধরে রিপোর্ট কার্ড তুলে দেওয়া হয়।

বিধায়ক বিক্রম প্রধান বলেন ২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার পর মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের উন্নয়নে যে প্রকল্পগুলি চালু করেছেন তা বিস্তারিত ভাবে রিপোর্ট কার্ডে লেখা রয়েছে।সেই রিপোর্ট কার্ড মানুষের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য বঙ্গজননী কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে ।এই কর্মসূচির মাধ্যমে বিধানসভা এলাকার প্রতিটি মানুষের হাতে কাজের খতিয়ান তুলে ধরে রিপোর্ট কার্ড যেমন তুলে দেওয়া হবে, তেমনি কেন্দ্রীয় সরকারের বঞ্চনার বিরুদ্ধে মানুষকে অবগত করা হবে।অপর দিকে শুক্রবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শালবনি বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত চন্দ্রকোনা রোডে বঙ্গধ্বনি কর্মসূচির সূচনা করেন শালবনির বিধায়ক শ্রীকান্ত মাহাতো। ওই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি উত্তরা সিংহ হাজরা, তৃণমূল এর শালবনি ব্লকের সভাপতি নেপাল সিংহ,তৃণমূলের গড়বেতা তিন ব্লকের সভাপতি রাজীব ঘোষ, জেলা পরিষদের সদস্য অঞ্জনা মাহাতো সহ তৃণমূলের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ।

বিধায়ক শ্রীকান্ত মাহাতো বলেন ২০১১ সাল থেকে ২০২০  পর্যন্ত রাজ্যের মা মাটি মানুষের সরকারের মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের উন্নয়নে যেসব কাজ করেছেন তা মানুষের কাছে তুলে ধরার জন্য রিপোর্ট কার্ড প্রতিটি মানুষের হাতে তুলে দেওয়া হবে । ওই রিপোর্ট কার্ডে লেখা রয়েছে রাজ্য সরকার কি কি কাজ করেছে । কারণ রাজ্য সরকার মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেয়নি এবং মানুষকে ভাওতা দেয়নি ।তাই কাজের মাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রী মানুষের কাছে তিনি কি কি কাজ করেছেন তা তুলে ধরার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই কর্মসূচিকে সামনে রেখে আগামী দিনে প্রতিটি বাড়িতে গিয়ে মানুষের হাতে  রিপোর্ট কার্ড তুলে দেওয়া হবে। যাতে মানুষ নিজের চোখে দেখতে পায় রাজ্য সরকার কি কি কাজ করেছেন। সেই সঙ্গে তিনি বলেন কেন্দ্রের কালা কৃষি বিল বাতিলের দাবিতে তৃণমূলের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।ওই কাল কৃষি বিল প্রত্যাহার ও বাতিল না করা পর্যন্ত তৃণমূলের আন্দোলন গ্রামে গ্রামে গিয়ে কৃষকদের নিয়ে করা হবে।

এছাড়াও গড়বেতায় আশীষ চক্রবর্ত্তীর নেতৃত্বে ,ঘাটালে শংকর দোলাই এর নেতৃত্বে ,চন্দ্রকোনা টাউনে ছায়া দোলাই এর নেতৃত্বে ,কেশপুরে শিউলি সাহার নেতৃত্বে, দাসপুরের মমতা ভূঁইয়ার নেতৃত্বে শুক্রবার  বঙ্গধ্বনি কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। মেদিনীপুরের বিধায়কের মৃত্যু হওয়ায় তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্বরা মেদিনীপুর শহরে বঙ্গ ধ্বনি কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেছিলেন। যার ফলে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা জুড়ে উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শুক্রবার তৃণমূলের  বঙ্গ ধ্বনি  অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

Related Articles

Back to top button
Close