fbpx
কলকাতাহেডলাইন

নবান্ন অভিযান নিয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের দ্বারস্থ হল বঙ্গ বিজেপি

ইন্দ্রাণী দাশগুপ্ত, নয়া দিল্লি: ৮ তারিখের নবান্ন অভিযানে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের উপরে পুলিশি হেনস্থার প্রতিবাদ জানিয়ে এবং বিজেপি সমর্থকদের উপর কেমিক্যাল মিশ্রিত জল ছোঁড়ার বিরোধিতা করে বুধবার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের দ্বারস্থ হল বঙ্গ বিজেপি। প্রতিনিধি দলে ছিলেন দুই সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত এবং সৌমিত্র খাঁ এবং ব্যারিস্টার কবীর শঙ্কর বোস। নবান্ন অভিযান ইয়েতির জলকামানের মাধ্যমে ছোঁড়া জলে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছিল এই দাবি লিখিত অভিযোগ পত্রের মাধ্যমে মানবাধিকার কমিশনের রেজিস্ট্রারের কাছে জমা করেন তাঁরা।

পরে সাংবাদিকদের সৌমিত্র খাঁ জানান, ৮ তারিখের নবান্ন অভিযানে বিজেপির যুব কর্মীদের উপরে পুলিশ নির্বিচারে লাঠিচার্জ করে। যার ফলে বহু কর্মী আহত হন। এছাড়াও মিছিলকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ কেমিক্যাল মিশ্রিত জল মিছিলের উপরে প্রয়োগ করে, যার ফলে বহু নেতাকর্মী অসুস্থ হয়ে পড়েন। বঙ্গ বিজেপির যুব সভাপতি সৌমিত্র অভিযোগ করেন যে, তাদের সন্দেহ জলের মধ্যে করোনা ভাইরাসের জীবাণু মিশ্রিত ছিল। কারণ  বহু নেতাকর্মী  হঠাৎ করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

[আরও পড়ুন- ভোট কাটলে বিজেপির সুবিধা হবে, মনে করছে কিছু মুসলিম নেতা, পীরজাদা আব্বাসকে কাছে পেতে চাইছে বাম-কংগ্রেস]

সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত বলেন, আমরা জানি হংকংয়ে চীনা সেনাবাহিনী আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কেমিক্যাল মিশ্রিত জল প্রয়োগ করেছিল। যা নিয়ে সেইসময় সমগ্র বিশ্বজুড়ে মানবাধিকার সংগঠনগুলি তীব্র নিন্দা জানিয়েছিল। পশ্চিমবঙ্গ বর্তমানে চীনের মতো এক স্বৈরাচারী শাসন ব্যবস্থা চলছে। আমরা এখনও গনতান্ত্রিক দেশে বসবাস করি। যেখানে প্রতিবাদ জানানোটা আমাদের সংবিধান স্বীকৃত অধিকার। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ সরকার সে সমস্ত কিছু ভুলে জলকামানের পরিবর্তে তারা কেমিক্যাল মিশ্রিত জল আমাদের কর্মীদের উপরে কেন ছুড়লো তার জবাব পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে দিতেই হবে ?

স্বপন দাশগুপ্ত আরও বলেন, আমরা রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের কাছে যাইনি কারণ ওখানে কোন সুবিচার পাওয়া সম্ভব নয়। সেই কারণে আমরা কেন্দ্রীয় মানবাধিকার কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছি এবং আমরা রেজিস্টারকে অনুরোধ করেছি যাতে তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখেন এবং একটি প্রতিনিধিদল পাঠান। পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান পরিস্থিতি এবং  নবান্ন অভিযানের দিন পুলিশ কিভাবে বিরোধী রাজনৈতিক দলের মানবাধিকার লংঘন করেছে সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখে বিচার করেন। রেজিস্টার আমাদের আশ্বস্ত করেছেন এবং অত্যন্ত তাড়াতাড়ি এই বিষয়ে যাবতীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close