fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

চলছে কৃষকদের ডাকে ভারত বনধ, আইন-শৃঙ্খলা লঙ্ঘন হলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ বিহার সরকারের

যানবাহন সচল রাখার চেষ্টায় কড়া নজরদারিতে দিল্লি পুলিশ, লক্ষ্ণৌতে জারি ১৪৪ ধারা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: কৃষকদের ডাকে আজ চলছে ভারত বনধ। অল ইন্ডিয়া ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়শনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে দিল্লির সর্বত্র যানবাহন সচল থাকবে। দিল্লি ট্র্যাফিক পুলিশ সোমবার জানিয়েছে যে সিংহু, অচান্দি, পিয়াও মানিয়ারি এবং মঙ্গেশ সীমান্ত বন্ধ থাকবে। পাশাপাশি এবং দিল্লি তিকরি ও ঝাড়োদা সীমান্তও বন্ধ থাকবে।

পুনে এপিএমসির বাজার ভারত বন্ধে খোলা রয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ী শচীন পেগুয়েদ বলেছেন, “আমরা কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থন করি। তবে আমরা আজ বাজারটি উন্মুক্ত রেখেছি’।

এদিকে এই বনধকে ট্রেড ইউনিয়ন ও কৃষক ইউনিয়নগুলি ভুবনেশ্বরে রেলওয়ে স্টেশনে ট্রেন থামায়। জয়পুরে এনএসইউআই কৃষক সংগঠনগুলির দেওয়া ভারত বন্ধের আহ্বানের সমর্থনে আজ সকাল সাড়ে ১১টায় বিজেপি অফিস ঘেরাও করার পরিকল্পনা করছে।

আরও পড়ুন: আজ কৃষকদের ডাকে ভারত বনধ, সমর্থন জানিয়ে শামিল একাধিক রাজনৈতিক দল

ভারতীয় কৃষক ইউনিয়নের মুখপাত্র কৃষক নেতা রাকেশ টিকাইত বলেছেন, “আমাদের প্রতিবাদ পুরোপুরি শান্তিপূর্ণ হবে। যদি বনধের কারণে কেউ আটকে যায়, আমরা তাকে জল, ও ফল সরবরাহ করব। নির্ধারিত কারণে আমরা এই বনধ ডেকেছি। রাজনৈতিক কারণ ডাকা বনধের থেকে আমাদের ডাকা এই বনধের দৃষ্টিভঙ্গি সম্পূর্ণ আলাদা। সকলের কাছে শান্তিপূর্ণ অবস্থানের জন্য আবেদন জানানো হয়েছে’।

অন্যদিকে বনধকে ঘিরে আইন-শৃঙ্খলা লঙ্ঘন হলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বিহার সরকার।

এদিকে মঙ্গলবার সমাজবাদী পার্টির কর্মীরা ভারত বনধের সময় বুন্দেলখণ্ড এক্সপ্রেস থামিয়ে ট্রেনের ট্র্যাকের সামনে শ্লোগান দেয়। বেনারস থেকে গোয়ালিয়র যাওয়ার বুন্দেলখণ্ড এক্সপ্রেসটি প্রয়াগরাজের কাছে ট্র্যাকগুলিতে ট্রেন থামিয়ে দেয় তারা। ভারত বনধের সমর্থনে অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়ওয়াদায় বাম দলগুলি বিক্ষোভে নেমেছে। ইতিমধ্যেই দিল্লি-হরিয়ানা সীমান্তকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

অপরদিকে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ মঙ্গলবার ভারত বনধের কারণে “জনগণ যাতে কোনও সমস্যায় না পড়েন” তা নিশ্চিত করার জন্য সরকা্রি কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় সমস্ত পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন।

কোনও ধরনের নাশকতামূলক ঘটনা এড়াতে ও কোভিড নির্দেশিকা মাথায় রেখে লক্ষ্ণৌ ও সমস্ত গ্রামীণ অঞ্চলে ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close