fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

বিজেপির ডাকা বনধে মিশ্র প্রভাব, স্বাভাবিক থাকল নবান্ন

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্কঃ পুরভোটে অশান্তির অভিযোগ তুলে আজ ১২ ঘন্টার বনধের ডাক দেয় বিজেপি। বনধে আজ বিক্ষিপ্ত সাড়া মিলল জেলায় জেলায়। অনেক জায়গা থেকেই বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর পাওয়া যায়। আবার কোথাও রেল অবরোধ করা হয়। কলকাতা সহ  পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলিতে কয়েকটি বিক্ষিপ্ত অশান্তি খবর পাওয়া যায়। তবে কলকাতার রাস্তায় বাস কম থাকলে অটো অন্যদিনের মতোই রাস্তায় দেখতে পাওয়া যায়। দক্ষিণ কলকাতায় সকাল ৯টা থেকে বনধ কর্মসূচি পালন করে বিজেপি। আর সাড়ে ৯টায় উত্তর কলকাতায় এই কর্মসূচি শুরু হয়। দক্ষিণে  যাদবপুর ৮বি বাসস্ট্যান্ড, বেহালা ১৪ নং বাসস্ট্যান্ড, খিদিরপুর মোড় এবং হাজরা মোড় রাস্তা অবরোধ করে গ্রেফতার হন বিজেপি কর্মীরা। উত্তর কলকাতায় বড়বাজার এলাকায় মালাপাড়া, মৌলালিতে এবং উল্টোডাঙায় বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি।

নবান্ন জানিয়েছিল, সব পরিষেবা স্বাভাবিক রাখা হবে।  সোমবার সকাল থেকে বনধের কোনও প্রভাব পড়েনি দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার ক্যানিংয়ে। বনধকে প্রতিহত করতে তৎপর ছিল ক্যানিং ট্রাফিক পুলিশ। সকাল থেকে রাস্তায় দাঁড়ায় ট্রাফিক পুলিশ কর্মীরা। স্বাভাবিক ছিল যান চলাচল। চলছে ট্রেনও। তবে সকাল ৭টা নাগাদ হুগলির স্টেশনে ডাউন বর্ধমান লোকাল আটকে দেয় বনধ সমর্থকরা। ব্যান্ডেল রেল পুলিশ এসে অবরোধ সরিয়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করে। পরে হুগলি স্টেশনের টিকিট কাউন্টারে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি।

আবার কোচবিহার পাওয়ার হাউস চৌপথি এলাকায় উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার একটি বাস আটকে বিক্ষোভ দেখালেন কোচবিহার দক্ষিণ কেন্দ্রের বিধায়ক নিখিলরঞ্জন দে সহ বিজেপি কর্মী–সমর্থকরা। বিক্ষোভ চলাকালীন কোচবিহার কোতোয়ালি থানার পুলিশ এসে যান চলাচল স্বাভাবিক করে। আর হাওড়া সানপুর মোড়ে অবরোধ করতে রাস্তায় বসে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মী–সমর্থকের। পুলিশ অবরোধ তুলে দেয়। কয়েকজনকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ব্যাঁটরা থানায়। তবে সকাল থেকে হাওড়া স্টেশনের ছবি ছিল স্বাভাবিক।

Related Articles

Back to top button
Close