fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সৎকারে বাধা! মৃত্যুর পাঁচদিন পর দাহ করা হল মৃতদেহ

মিলন পণ্ডা, পূর্ব মেদিনীপুর: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে কিনা এই সন্দেহে কোথাও মৃতদেহ সৎকার করতে দিচ্ছে না এলাকার লোকজন। যেখানেই যাচ্ছে সেখানেই প্রবল বিক্ষোভের মুখে পড়তে হচ্ছে মৃতের পরিবারের লোকজনদের। এমনই ঘটনার সাক্ষী থাকল পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি থানার অন্তর্গত ঘাঁটুয়া গ্রামের বাসিন্দা অক্ষয় রাউলের পরিবার।

কর্মসূত্রে স্বস্ত্রীক মহারাষ্ট্রের পূণেতে থাকতন তিনি। গত রবিবার বছর তেইশের ওই যুবক অক্ষয় রাউলের  অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘটে। খবর পেয়ে তড়িঘড়ি পরিবারের লোকজন একটি গাড়ি ভাড়া করে ওই মৃতদেহ গ্রামে নিয়ে এলে গ্রামবাসীরা সৎকার করতে বাধা দেয়। নিরুপায় হয়ে মৃতের পরিবারের লোকজন মৃতদেহটি সৎকারের জন্যে কাঁথি শহরের একটি শ্মশানে নিয়ে আসলে চরম বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয় তাদের।

আরও পড়ুন: করোনা আটকাতে লক্ষণ গন্ডি দেখা গেল রেশনের দোকানে

মৃতের পরিবারের লোকজনের কথায় পারিবারিক অশান্তির জেরে ওই যুবক গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে, করোনায় সংক্রামিত হয়ে নয়। কিন্তু কে শোনে কার কথা! কোনও কথা শুনতেই নারাজ এলাকাবাসী। সকলেরই সন্দেহ ওই যুবক হয়তো করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। পরিবারের লোকের কথায় কোনও রকমে চিকিৎসাবিজ্ঞানের মাধ্যমে মৃতদেহের পচন আটকানো হয়।

এদিকে নিরুপায় হয়ে সৎকারের জন্যে মৃতদেহ নিয়ে হন্যে হয়ে ঘুরতে মৃতের পরিবারের লোকেরা। অবশেষে আজ বৃহস্পতিবার গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান ও স্থানীয় কিছু মানুষের উদ্যোগে মৃতদেহের সৎকার হয়।

 

Related Articles

Back to top button
Close