fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ক্যানিংয়ে তৃণমূল নেতা সহ তার দুই সঙ্গীকে নৃশংস খুনের ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: ২১ জুলাইয়ের আগে ক্যানিংয়ের তৃণমূল নেতা সহ তার দুই সহযোগীকে নৃশংসভাবে খুনের ঘটনা নিয়ে তোলপাড় রাজ্য-রাজনীতি। দক্ষিণ ২৪ পরগনার ক্যানিংয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা নাগাদ এই ধরনের ঘটনাকে ঘিরে উঠেছে নিরাপত্তার প্রশ্ন। হঠাৎ জনা কয়েক দুষ্কৃতী এসে তাঁদের গুলি করে পালিয়ে যায়। একেবারে সামনে থেকে তৃণমূল নেতা স্বপন মাঝিকে গুলি করে তারা। দুষ্কৃতীরা তৃণমূল নেতার গলা কাটারও চেষ্টা করেছিল। পালানোর সময় তার দুই সঙ্গীকেও গুলি করে খুন করে তারা।

যেকোনও দিন খুন হতে পারেন পঞ্চায়েত সদস্য সেকথা নাকি জানতেন বিধায়ক। তারপরেও কেন তিনি পুলিশি নিরাপত্তার কোনও ব্যবস্থা করেননি তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

পুলিশ ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে। খবর পেয়ে সেখানে যান বিধায়ক পরেশরাম দাস। তিনি জানিয়েছেন আগই নাকি স্বপন মাঝি নিজে খুন হতে পারেন বলে তাঁর কাছে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, স্বপন মাঝির আশঙ্কার কথা তিনি পুলিশকে জনিয়েছিলেন। এবং এদিন তঁকে বাড়িতে ডেকেছিলেন পুলিশের সঙ্গে কথা বলিয়ে দেবেন বলে। পুলিশ সুপারের সঙ্গে স্বপন মাঝির দুপুরে কথা বলিয়ে দেওয়ার কথা ছিল। তার আগেই তাঁকে খুন হতে হয়। তার আগেই তাঁকে খুন হতে হল বলে মন্তব্য করেছেন বিধায়ক।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, পুরনো শত্রুতার জেরে এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। রাজনৈতিক কোনও যোগসূত্র আছে কিনা তা নিয়ে তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close