fbpx
কলকাতাহেডলাইন

বাসভাড়া বাড়ছে না, আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্যের বেসরকারি বাস পরিষেবা সচল রাখতে মাস্টারস্ট্রোক দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।  এদিন তিনি জানিয়েছেন দিলেন, বেসরকারি বাস, মিনিবাসের ভাড়া বাড়ছে না। তবে আগামী তিন মাস বাস মালিকদের আর্থিক ভাবে সাহায্য করবে রাজ্য। প্রত্যেক বাসমালিককে মাসে ১৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। এদিন তিনি বলেন, ‘ বাসভাড়া বাড়াতে বা পারছি না। তবে ১ জুলাই থেকে তিনমাস ৬ হাজার বাস মিনিবাস মালিকদের প্রত্যেককে ১৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা করা হবে।’

করোনা পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের উপর আর্থিক বোঝা চাপাতে নারাজ রাজ্য। মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দেন , ‘ বাসভাড়া বাড়াতে পারছি না, ১ জুলাই থেকে তিনমাস ৬ হাজার বাস, মিনিবাসের মালিকদের ১৫ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা করা হবে। এজন্য তিনমাসে রাজ্যের ২৭ কোটি টাকা খরচ হবে।’

অবশ্য মুখ্যমন্ত্রী এই সমস্যার জন্য কেন্দ্রকেই দায়ী করেছেন। তিনি বলেন, ‘কেন্দ্র একের পর এক জিনিসের দাম বাড়াচ্ছে। হু-হু করে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়াচ্ছে। কোথাও কোথাও পেট্রোলের চেয়ে ডিজেলের দাম বেশি হয়ে গিয়েছে। এটা কেন হচ্ছে, বুঝতে পারছি না। সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তবে বাসভাড়া বাড়াতে আমি পারছি না। তাই এই ভরতুকির সিদ্ধান্ত।’

আরও পড়ুন: রাজ্যে করোনা চিকিৎসার খরচ বেঁধে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী, মানতে নারাজ চিকিৎসকদের সংগঠন

কিন্তু বেসরকারি বাসমালিক সংগঠনগুলি এই ঘোষণায় আদৌ খুশি নয়। জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেটের সম্পাদক তপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘ এই ঘোষণা শুধু কলকাতার বাস মালিকদের জন্য করা হয়েছে। কিন্তু আমাদের জেলার বাসগুলো কি দোষ করলো? তাঁরা সবাই আমাদের সদস্য। তাছাড়া আমাদের প্রত্যেকদিন বাস চালাতে খরচ হয় ১২ হাজার টাকা। সুতরাং ১৫ হাজার টাকায় আমাদের কী হবে? আমাদের এখন প্রত্যেকদিন ৬ হাজার টাকা করে আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে। সেই ক্ষতিপূরণ কে পূরণ করবে? তারউপর পেট্রোল, ডিজেলের দাম টানা ২০ দিন ধরে ঊর্ধ্বগামী। এই পরিস্থিতিতে বাসভাড়া না বাড়ালে আমাদের পক্ষে বাস চালানো সম্ভব নয়। আগামী রবিবার আমরা নিজেদের মধ্যে বৈঠকে বসছি, তারপর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবো।’ সুতরাং পরিবহণ জট যে তিমিরে ছিল সেই তিমিরেই রইলো, অন্তত শুক্রবার পর্যন্ত।

Related Articles

Back to top button
Close