fbpx
দেশহেডলাইন

৩১ অগাস্ট পর্যন্ত আন্তর্জাতিক উড়ানে নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখল কেন্দ্র

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: দেশের করোনা পরিস্থিতি এখনও অত্যন্ত উদ্বেগজনক, বরং দিনের পর দিন বাড়ছে সংক্রমিতের সংখ্যা। পাল্লা দিয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে মৃত্যুর হারও। আর সেই কারণেই আপাতত আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা চালু না করার সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র। এখনই আন্তর্জাতিক স্তরে বিমান চলাচলের পক্ষে সায় দিতে পারল না কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী। সে কারণেই আগামী ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত বহাল রাখল এই নিষেধাজ্ঞা।

শুক্রবার অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের তরফে  জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আগামী ৩১ আগস্ট রাত ১২টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা। ভারত থেকে কিংবা ভারতে নিষিদ্ধ আন্তর্জাতিক বিমানের ওঠানামা। যদিও আগের মতোই কার্গো বিমান পরিষেবা চালু থাকবে। তবে কেন্দ্রের তরফে এও জানানো হয়, ইতিমধ্যেই একাধিক দেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে ‘ট্রাভেল বাবলস’ তৈরি করেছে ভারত। অর্থাৎ জৈব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে থেকেই অন্য দেশে পৌঁছে যাওয়া যাবে। সেক্ষেত্রে বিশেষ অনুমতি নিয়ে বিমান যাত্রা করতে পারবেন যাত্রীরা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি ও ফ্রান্সের সঙ্গে এই ট্রাভেল বাবলস তৈরি করেছে ভারত। আগামি দিনে ব্রিটেন, কানাডা-সহ আরও কিছু দেশের সঙ্গে এই জৈব সুরক্ষা বলয় তৈরি করে যাত্রীদের সফরের উপযোগী করে তোলা হবে। কেন্দ্রের সমস্ত নিয়ম মেনেই সেক্ষেত্রে সফর করতে হবে।উল্লেখ্য, দেশে করোনার দাপট বৃদ্ধি পেতেই গত ২২ মার্চ বন্ধ করে দেওয়া হয় আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা। তারপর থেকে মহামারীর জেরে সেই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বেড়েই চলেছে। যদিও এর মধ্যেই বন্দে ভারত অভিযানে বিদেশে আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরানো হচ্ছে। চালু হয়েছে আন্তর্দেশীয় বিমান পরিষেবাও। তবে আন্তর্জাতিক সফরের গেট এখনই খুলে দিতে নারাজ কেন্দ্র।

আরও পড়ুন: সমস্ত সুরক্ষা বিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনেই নমাজ-পাঠ হল দিল্লির জামা মসজিদে

প্রসঙ্গত, গত বুধবার কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে প্রকাশিত হয় আনলক ৩.০-র নয়া গাইডলাইন। এই নির্দেশিকা অনুযায়ী আগামীকাল থেকে তুলে দেওয়া হল নাইট কার্ফু। সেই সঙ্গে আগামী ৫ অগাস্ট জিম এবং যোগা সেন্টার খোলার অনুমতি দিল বিজেপি সরকার। তবে অবশ্যই কনটেনমেন্ট জোনগুলিতে জিম বা যোগা সেন্টার খোলা যাবে না বলে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও কেন্দ্র সরকার থেকে এই অনুমতি দিলেও রাজ্যগুলিতে আদৌ জিম খোলা হবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত নেবে একমাত্র স্থানীয় প্রশাসনই।

অন্যদিকে এই চতুর্থ পর্যায়ে সিনেমা হল বা মাল্টিপ্লেক্স খোলা হতে পারে, এমন গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল গত কয়েকদিন ধরে। কিন্তু এদিন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক স্পষ্ট জানিয়ে দেয় স্কুল, কলেজ, সিনেমা হল কোনওকিছুই এখন খোলা যাবে। সেই সঙ্গে কোনওরকমের বড় সমাবেশ আগামী একমাসে করা যাবে না। শুধু তাই নয় আগামী একমাসে মেট্রো রেল, বিনোদন পার্ক, থিয়েটার, বার, অডিটোরিয়াম কোনও কিছুই চালু করা যাবে না বলে সাফ জানিয়ে দেয় কেন্দ্র সরকার।

 

Related Articles

Back to top button
Close