fbpx
দেশহেডলাইন

পুরীর রথযাত্রা করার শেষ চেষ্টায় একজোট হল কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সংক্রমণের জন্য রথযাত্রা আটকে দেওয়ার আগে থেকে পরিকল্পিত বলে অভিযোগ করলেন পুরীর শঙ্করাচার্য স্বামী নিশ্চলানন্দ সরস্বতী। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এবছর রথযাত্রা স্থগিত রাখা হয়েছে যার অন্যতম কারণ হল করোনার সংক্রমণ। তবে এই সুপ্রিম নির্দেশের বিরুদ্ধে শীর্ষ আদাবতে একাধিক মামলা দায়ের করা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের সিঙ্গল বিচারপতির বেঞ্চে সেই মামলাগুলির শুনানি আজ।পুরীর রথযাত্রা করার শেষ চেষ্টায় একজোট হল কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। করোনার থাবাকে অগ্রাহ্য করে শুধুমাত্র সংস্কারকে হাতিয়ার করে এবার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হল এই দুই সরকার। সরকারের এই যুক্তি শুনতে রাজি হয়েছে শীর্ষ আদালতও।

সোমবার সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহেতা শীর্ষ আদালতে জানান, করোনার জন্য রথযাত্রায় জমায়েতে না করেছেন সুপ্রিম কোর্ট। তা নিয়ে কিছু বলার নেই। কিন্তু কড়া নিয়মের মধ্যে রথ টানার অনুমতি দেওয়া হোক। তা না হলে সংস্কার অনুযায়ী ১২ বছর আর মন্দির থেকে বেরোতে পারবেন না প্রভু জগন্নাথ।

আর পড়ুন:  গরিব কল্যাণ রোজগার অভিযানে বাংলার নাম অন্তর্ভুক্তির দাবিতে চিঠি!

সলিসিটার জেনারেল জানান, কেন্দ্র ও রাজ্য সুপ্রিম কোর্টের এই রায় সম্মান করে। কিন্তু সংস্কারের জন্য অত্যন্ত হাতেগোনা কয়েকজন সেবাইতদের উপস্থিতিতে এই রথ টানার ছাড়পত্র দেওয়া হোক। তাহলে ধর্ম কিংবা সংস্কার যেমন রক্ষিত হবে, তেমনি করোনা সংক্রান্ত সাবধানতাও রক্ষা করা যাবে। তাই সবদিক দেখে এই ধরনের রথযাত্রায় ছাড়পত্র দিক শীর্ষ আদালত। গত সপ্তাহেই এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছিল, করোনার কারণে এবছর রথযাত্রা স্থগিত রাখা হোক। প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে জানান, আমরা যদি এই সিদ্ধান্ত না নিই তাহলে প্রভু জগন্নাথও আমায় ক্ষমা করবেন না।

Related Articles

Back to top button
Close