fbpx
কলকাতাহেডলাইন

বাংলা সাহিত্যে নিরলস অবদান, ‘বাংলা আকাদেমি’ পুরস্কার পেলেন মুখ্যমন্ত্রী

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: সাহিত্যে অবদানের জন্য এবার ‘বাংলা আকাদেমি’ পুরস্কারে ভূষিত হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলা আকাদেমির নামাঙ্কিত ‘রিট্রিভার্সিপ’ পুরস্কার দেওয়া চালু হল এ বছর থেকে।

প্রথম বছর বাংলার সাহিত্যিকদের সঙ্গে পরামর্শ করে মুখ্যমন্ত্রীকে তার ‘কবিতা বিতান’ কাব্যগ্রন্থের জন্য এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

২৫ শে বৈশাখ ৯ মে ‘কবি প্রণাম’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দফতর।

সেই অনুষ্ঠান মঞ্চে দাঁড়িয়ে শিক্ষামন্ত্রী তথা বাংলা আকাদেমির চেয়ারম্যান ব্রাত্য বসু বলেন, ‘সমাজের অন্যান্য ক্ষেত্রে কাজের পাশাপাশি যারা নিরলস সাহিত্য সাধনা তথা সারস্বত সাধনা করে চলেছেন, তাদের পুরস্কৃত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলা আকাদেমি। প্রথম বছর বাংলার শ্রেষ্ঠ সাহিত্যিকের মতামত নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই পুরস্কার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তার কবিতা বিতান কাব্যগ্রন্থকে মাথায় রেখে সার্বিকভাবে তার সাহিত্য কীর্তির জন্য এই পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। রাজ্য সরকার আয়োজিত ‘কবি প্রণাম’ অনুষ্ঠানে সশরীরে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু তিনি নিজে ওই পুরস্কার গ্রহণ করেননি। ব্রাত্য বসু মুখ্যমন্ত্রীকে পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করার সময় তাকে মাঝপথে থামিয়ে দেন তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন।

ব্রাত্যকে তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর তরফে এই পুরস্কার গ্রহণ করবেন ব্রাত্য। এরপর ইন্দ্রনীল নিজেই ব্রাত্যের হাতে ওই পুরস্কার তুলে দেন।

এছাড়াও সোমবার রবীন্দ্র পুরস্কারে সম্মানিত করা হয় বাংলার তিন কৃতি ব্যক্তিত্বকে। বাংলা সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য রবীন্দ্র পুরস্কার পেলেন সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, বিজ্ঞান বিষয়ক লেখার জন্য পুরস্কৃত হলেন বিকাশ সিংহ। বাংলা ছাড়াও অন্য ভাষায় রচিত সমাজ বিষয়ক রচনার জন্য রবীন্দ্র পুরস্কার পেলেন ফ্রাঁস ভট্টাচার্য। শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় ও বিকাশ সিংহের হাতে পুরস্কার তুলে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফ্রাঁস ভট্টাচার্যের হয়ে মুখ্যমন্ত্রীর হাত থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন তার আত্মীয়।

Related Articles

Back to top button
Close