fbpx
কলকাতাহেডলাইন

বৃহস্পতিবার বিজেপির নবান্ন অভিযানে অবরুদ্ধ হতে পারে শহর

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা, হাওড়া: একুশের নির্বাচনের আগে বৃহস্পতিবার লক্ষাধিক কর্মী, সমর্থকের জমায়েত করে নবান্ন অভিযান করতে চায় বিজেপি। আর এই কর্মসূচির জেরে অবরুদ্ধ হয়ে পড়তে পারে শহর। বিজেপি রাজ্য দফতর, হেস্টিংস কার্যালয়, হাওড়া ময়দান ও সাঁতরাগাছি থেকে চারটি মিছিল নবান্ন অভিমুখে রওনা দেবে। রাজ্য দফতর থেকে মিছিলের নেতৃত্ব দেবেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, হেস্টিংস থেকে নেতৃত্বে থাকবেন কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় , সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়, হাওড়া ময়দান থেকে নেতৃত্বে থাকবেন যুবমোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য ও রাজ্য যুব সভাপতি সৌমিত্র খাঁ, সাঁতরাগাছি থেকে নেতৃত্বে থাকবেন সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু।

এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই উত্তেজনার আঁচ। ইতিমধ্যেই বিজেপি যুবমোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য টুইট করেছেন, ‘ পায়ে পায়ে উড়িয়ে ধুলো, ৮ তারিখ নবান্ন চলো। স্বামী বিবেকানন্দ, নেতাজি সুভাষচন্দ্র, শ্যামাপ্রসাদের পুণ্যভূমিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার দুর্গতির ক্ষেত্রে পরিণত করেছেন। বাংলায় গণতন্ত্রের নিরন্তর হত্যা হচ্ছে। যে আতঙ্কবাদ, ভ্রষ্টাচার, বেরোজগারির বিরুদ্ধে আওয়াজ ওড়াচ্ছে তার জীবন শেষ করে দেওয়া হচ্ছে। আমাদের ১০০ জনের বেশি কর্মকর্তাকে হত্যা করা হয়েছে। একেবারে সম্প্রতি আমাদের যুবনেতা মনীশ শুক্লাকে হত্যা করা হলো।  বেরোজগার, আতঙ্কবাদের বিরুদ্ধে আমাদের নবান্ন অভিযান।’ বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু হুঁশিয়ারি দিয়েছেন,’ ওই মিছিল গণতান্ত্রিক শিষ্টাচার ভাঙতে চায় না। কিন্তু তা একতরফাভাবে মানা সম্ভব নাও হতে পারে। পুলিশের আচরণের উপর আমাদের আচরণ নির্ভর করবে।’

আরও পড়ুন: একুশের ডিসেম্বরের মধ্যে ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর প্রকল্প সম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে ৮৫৭৫ কোটি টাকা বরাদ্দ কেন্দ্রে

এদিকে এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে যাতে কোনো অশান্তি না হয় সে দিকে প্রশাসন কড়া নজর রেখেছে।বুধবার বিকেল থেকেই হাওড়া র বিভিন্ন পয়েন্টে ব্যারিকেট করা হয়েছে।সাঁতরাগাছি পয়েন্ট ছাড়া ও হাওড়ার ফোরসোর রোডে তৈরী হয়েছে ব্যারিকেট। তবে নবান্ন অভিযানে হাওড়া পয়েন্ট থেকেই বেশী লোক জমায়েত হবে বলে মনে করা হচ্ছে ।বিশেষত হাওড়া গ্রামীণ এলাকা থেকে ভালো জমায়েত হবে এবং এই জমায়েতে একটা বড় অংশ সংখ্যালঘু সম্প্রদায় থাকবে এমনটাই আশা করছেন বিজেপি নেতারা ।হাওড়া জেলার গ্রামীণ এলাকা থেকে যে তাঁরা আসবেন সে বিষয়ে  অনেকটাই নিশ্চিত বিজেপি নেতৃত্ব । অন্যদিকে জানা গিয়েছে এই অভিযানকে কেন্দ্র করে পুলিশ মহলে ও সাজো সাজো রব। শরৎ সদনে পুলিশের কর্তারা দীর্ঘ বৈঠক করেছেন। অশান্তি এড়াতে ও বি জে পি কে রুখতে রীতি মতো সাজো সাজো রব পুলিশ অন্দরে। অন্যদিকে বিজেপি কর্মীরা ইতিমধ্যেই হাওড়া শহরে আসতে শুরু করেছে। এখন দেখার শেষ পর্যন্ত কি হয়।

 

 

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close