fbpx
আন্তর্জাতিকবাংলাদেশহেডলাইন

বৃষ্টির চোখ রাঙানিতে বাংলাদেশে পুজোর আকাশে মেঘের ঘনঘটা

ষষ্ঠীর দিনে ফাঁকা মণ্ডপ, আয়োজকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক, ঢাকা: ষষ্ঠী তিথিতে দেবী দুর্গার আমন্ত্রণে দিনে আকাশে কালো মেঘের চোখ রাঙানি ও বৃষ্টির কারণের ভক্তশূণ্য বাংলাদেশের পুজো মণ্ডপগুলো।

করোনা মহামারীর কারণে স্বাস্থ্যবিধির কড়াকড়ি আর বাজেট কাটছাঁটের কারণে এমনিতেই এবার উৎসবের সেই আড়ম্বর নেই; তার সঙ্গে যোগ হয়েছে বৃষ্টির চোখ রাঙানি। সব মিলিয়ে প্রতিবেশি দেশের পুজোর আকাশে আক্ষরিত অর্থেই এবার মেঘের ঘনঘটা। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই আকাশের মুখ ভার। বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের প্রভাবে বিরতিহীন বৃষ্টি হয়েছে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে। যার কারণে পূজার্থীদের মনে জমে থাকা মেঘও যেন তার সঙ্গে যোগ হয়েছে। এ কারণে বলা চলে ভক্ত শূণ্যই ছিল মণ্ডপগুলোতে।

এমনিতেই করোনার কারণে এবার চাপ পড়েছে পুজোর বাজেটে। আকর্ষনীয় প্যান্ডেল, মন্ডপ নেই। সঙ্গে আলোকসজ্জার ঝলকানিও এবার নেই। এরপর বিরতিহীন বৃষ্টি এবং আগামী কয়েকদিনও বৃষ্টির আশঙ্কা ভাবিয়ে তুলেছে আয়োজক ও ভক্তদের। এরপর সন্ধ্যা আরতির পর মণ্ডপ দশনার্থীদের জন্য বন্ধ রাখার নির্দেশনায় আয়োজকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ আরেকটু বেড়েছে।

আরও পড়ুন- বাংলাদেশে দুর্গাপুজো এবং ‘অস্তিত্বের’ লড়াই

বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের মহাসচিব গোবিন্দ্র চন্দ্র প্রমাণিক জানিয়েছেন, করোনার কারণে অর্থের টানাটানির মধ্যে এবার পুজো নিয়ে হিন্দুদের মধ্যে কোন উচ্ছ্বাস নেই। এ ছাড়া উৎসব সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো না থাকায় এবার নিরুৎসাহের পুজোর পরিবেশ।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা বলেছেন, করোনার এ সময়ে যতটা সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং শাস্ত্রমতে যা যা বলা হয়েছে তা করা হবে। ঢাকায় এবার কুমারী পূজা হবে না। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক আয়োজনও থাকছে না।সরকার নির্দেশিত ২৬ দফা ও ৭ দফা নির্দেশনা মেনে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্ববাসীর করোনামুক্ত হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে সপ্তমী তিথিতে প্রার্থনা করা হবে। করোনার কারণে নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিমা বিসর্জনে শোভাযাত্রা পরিহার করা হবে।

 

Related Articles

Back to top button
Close