fbpx
কলকাতাদেশহেডলাইন

রাজনীতির ঊর্ধ্বে দেশ, আগামী দু’দিন সব রাজনৈতিক কর্মসূচি বাতিল করলো বিজেপি

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনা সেনার সঙ্গে সঙ্ঘর্ষে নিহত হয়েছেন ২০ জন ভারতীয় সেনা। এঁদের মধ্যে রয়েছেন বাংলার ২ জন বীরভূমের রাজেশ ওরাঙ ও আলিপুর দুয়ারের বিন্দিপাড়া গ্রামের বিপুল রায়। বীর শহিদদের শ্রদ্ধা জানাতে আগামী দুদিন সব রকম রাজনৈতিক কর্মসূচি বাতিল করলো বিজেপি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেছেন, ‘ ভারতীয় সেনাদের বলিদান ব্যর্থ হবে না।’ অন্যদিকে বৃহস্পতিবার টুইট করে শ্রদ্ধা জানালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। তিনি লিখেছেন, ‘গালওয়ান উপত্যকায় মাতৃভূমি রক্ষায় অমর শহিদরা যে বলিদান দিয়েছেন, তারজন্য তাঁরা স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। দেশ তাঁদের কাছে ঋণী হয়ে থাকবে। আমি শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছি।’

একই সঙ্গে তিনি টুইটে আরও উল্লেখ করেছেন, ‘বিজেপি সমস্ত রাজনৈতিক কর্মসূচি, ভার্চুয়াল জনসভা ইত্যাদি পরবর্তী দু’দিনের জন্য স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’ রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষও জানিয়েছেন, ‘ বীর শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আগামী দুদিন সমস্ত রাজনৈতিক কর্মসূচি বাতিল করেছে রাজ্য বিজেপি।’ গেরুয়া শিবিরের এই সিদ্ধান্তের নেপথ্যে দেশপ্রেমের আবেগ উস্কে দেওয়ার অঙ্ক দেখছেন রাজ্যের রাজনৈতিক মহল। বিশেষ করে এই রাজ্যের দুই জওয়ান শহিদ হয়েছেন চিনের হামলায়। স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যের মানুষের আবেগ জড়িয়ে রয়েছে এই ঘটনার সঙ্গে।

আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রীর ডাকা সর্বদল বৈঠকে থাকছেন মমতাও

রাজ্য বিজেপি অবশ্য গোড়া থেকেই এই  ঘটনার সঙ্গে রাজনীতি না করার আর্জি জানিয়েছে। বুধবারই বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, ‘ বিষয়টি স্পর্শকাতর, সরকার বলবে কি হয়েছে, এটা নিয়ে বিতর্ক তৈরি না করাই ভালো। ভেবেচিন্তে কথা বলা উচিত। এই বিষয়ে রাজনীতি করবেন না, দেশের পাশে থাকুন, সেনার পাশে থাকুন।’ বুধবার সন্ধ্যায় শহিদ জওয়ানদের স্মরণে মোমবাতি মিছিল করেছিলেন সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়।

কিন্ত দলের সর্বভারতীয় সভাপতির নির্দেশে আগামী দুদিন রাজনৈতিক কর্মসূচি বাতিল করে রাজনৈতিক ভাবে বিজেপি বিরোধী দলগুলোর তুলনায় কয়েক কদম এগিয়ে গেল। এমনটাই মনে করছেন তথ্যাভিঞ্জ মহল। বিশেষ করে বাংলায়। গেরুয়া শিবির মানুষের কাছে স্পষ্ট বার্তা দিলেন রাজনীতির ঊর্ধ্বে দেশ। তাই অমিত শাহের ভার্চুয়াল জনসভা তুমুল সফল হওয়ার পর যখন জনসম্পর্ক অভিযানে সাড়া পাচ্ছেন, তখন গেরুয়া শিবিরের রাজনৈতিক কর্মসূচি বাতিল করার সাহসী সিদ্ধান্ত আদতে ডিভিডেন্ড বাড়ালো বলেই মনে করছেন রাজনীতির কারবারীরা।

Related Articles

Back to top button
Close