fbpx
দেশহেডলাইন

তীব্র দাবদহে পুড়ছে দেশ

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: ক্রমশই উষ্ণ হয়ে উঠছে আবহাওয়া। এপ্রিলের মাসের প্রথম সপ্তাহেই যেন মে মাসের দাবদাহ। রোদ অসহনীয় উঠছে। সেই সঙ্গে লু বইবার সতর্কতা আগেই দিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

আবহাওয়া দফতরের (আইএমডি) এক বিশ্লেষণে এ তথ্য সামনে এসেছে। সংস্থাটির তথ্য অনুসারে, উত্তর-পশ্চিম এবং মধ্যাঞ্চলের তাপমাত্রায় বড় ধরনের বিচ্যুতিই দেশে এই রেকর্ড ভাঙা গরমের মূল কারণ।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জলবায়ু সংকটও গরমের এই অস্বাভাবিক প্রবণতার বড় কারণ।  আইএমডির (পুনে) জলবায়ু পর্যবেক্ষণ এবং পূর্বাভাস গ্রুপের প্রধান ওপি শ্রীজিতের মতে, ‘বৃষ্টিপাতের অভাব এই গরমের অন্যতম একটি কারণ। মার্চ মাসে দুটি তাপপ্রবাহও দেখা গেছে। যার ফলে পশ্চিম দিক থেকে উত্তর এবং মধ্য ভারতে তাপ প্রবাহিত হয়েছিল। সামগ্রিক বৈশ্বিক উষ্ণতাও এর একটি প্রধান কারণ।’

আইএমডি বলছে, ১৯০১ সালের পর ভারতের ইতিহাসে পঞ্চম উষ্ণতম বছর ছিল ২০২১। জলবায়ু বিশেষজ্ঞ এবং ভারতের স্কাইমেট ওয়েদার সার্ভিসেস’র ভাইস-প্রেসিডেন্ট (আবহাওয়া ও জলবায়ু পরিবর্তন) মহেশ পালাওয়াত বলেন, ‘চলতি বছরের মার্চ মাসে এ ধরনের উচ্চ তাপমাত্রার পেছনের প্রাথমিক কারণগুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল কম বৃষ্টিপাত এবং ধারাবাহিক তাপপ্রবাহ। এপ্রিলের প্রথমার্ধেও আবহাওয়া অপরিবর্তিত থাকতে পারে।’

আগের বছরগুলোর একই সময়ের তুলনায় ভারতে গত মার্চে প্রায় ৭১ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে। দেশটিতে ১১৪ বছরে এর চেয়ে কম বৃষ্টিপাত হয়েছে মাত্র দু’বার।  চিকিৎসকদের মতে বাড়ছে হিট স্ট্রোকের সম্ভাবনা। বেশি করে ফল, ডাবের জল, পানীয়, যে ফলের জলের মাত্রা বেশি সেটি বেশি করে খাবার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close