fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শিশুদের হাতে উপহার সামগ্রী তুলে দিয়ে বিবাহবার্ষিকী উদযাপন দাঁইহাটের দম্পতির

দিব্যেন্দু রায়,দাঁইহাট:  বিবাহবার্ষিকীর দিনে আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশীদের নিমন্ত্রন করে খাওয়ানোর ইচ্ছা ছিল । সেই খরচের জন্য আলাদা করে টাকাও জমিয়ে রাখা হয়েছিল। কিন্তু লকডাউনের কারনে ভেস্তে যায় সেই পরিকল্পনা । শেষ পর্যন্ত জমানো টাকায় পাড়ার শিশুদের উপহার সামগ্রী কিনে দিয়ে অভিনবভাবে বিবাহবার্ষিকী উদযাপন করলেন দাঁইহাট পুরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা বিনীতা বড়াল ও সিদ্ধার্থ বড়াল নামে এক দম্পতি । মঙ্গলবার তাঁরা প্রতিবেশীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রায় পাঁচ’শ শিশুর হাতে তুলে দিলেন একটি করে উপহারের প্যাকেট । প্যাকেটে ছিল আঁকার রঙ পেনসিল, ড্রয়িং খাতা। এছাড়া শিশুদের পছন্দের খাবার চকলেট ও কুড়কুড়েও ছিল ওই প্যাকেটগুলিতে ।

একদিকে যেমন এই প্রকার উপহার পেয়ে খুশি পাড়ার শিশুরা। তেমনি দম্পতির অভিনব এই উদ্যোগের প্রশংসা করেছে এলাকার মানুষ। জানা গেছে,সিদ্ধার্থ বড়াল পেশায় ব্যবসায়ী। বছর তেরো আগে সিদ্ধার্থবাবু ও বিনীতাদেবীর বিয়ে হয়। তাদের একটি সাড়ে তিন বছরের পুত্রসন্তান রয়েছে। এদিন ১৩ তম বিবাহবার্ষিকী ধুমধাম করে পালন করার পরিকল্পনা ছিল ওই দম্পতির । সিদ্ধার্থবাবু বলেন, ‘আমাদের ১৩ তম বিবাহবার্ষিকী উপলক্ষে আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশীদের নিমন্ত্রন করে খাওয়াব বলে ঠিক করেছিলাম ।

আরও পড়ুন: করালী করোনার কামড়ে কাঁপছে কোলাঘাট

অনুষ্ঠানের খরচের জন্য আমার স্ত্রীর কাছে কিছু টাকাও রাখা ছিল। কিন্তু লকডাউনের কারনে লোকজন নিমন্ত্রণে বিধিনিষেধ রয়েছে। তাই অনুষ্ঠান বাতিল করে দিতে হয়। এরপর অনুষ্ঠানের পরিবর্তে জমানো টাকা দিয়ে উপহার কিনে পাড়ার শিশুদের হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই আমরা ।’ সিদ্ধার্থবাবু ও বিনীতাদেবী জানিয়েছেন, লকডাউনের কারনে শিশুরা বাইরে গিয়ে খেলাধুলা করতে পারছে না । তাই তারা যাতে বাড়িতে বসে ছবি এঁকে সময় কাটাতে পারে সেই কারনে এই উপহার দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছেন তাঁরা।

Related Articles

Back to top button
Close