fbpx
দেশহেডলাইন

করোনায় মৃত সন্দেহ সৎকারে বাধা, পুলিশ-ডাক্তারকে পাথর ছুড়ল জনতা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনায় মৃত্যু হয়েছে এমনটাই সন্দেহে সৎকারে বাধা দিলেন স্থানীয়রা। সেই গণ্ডগোল বাঁধলে সেখানে পুলিশ পৌঁছায়। তাঁর পর পুলিশ-ডাক্তারকেও লক্ষ্য করে পাথর ক্ষুব্ধ জনতা পাথর ছুঁড়ে বলে অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে হরিয়ানার চন্দনপুরা গ্রামে।

জানাগেছে, ওই গ্রামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়। যদিও এক ডাক্তার জানিয়েছেন, ওই বৃদ্ধার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট এখনও হাতে আসেনি। কিন্তু তাঁর পরেও বৃদ্ধার মৃত্যু করোনায় আক্রান্ত হয়ে হয়েছে কি না সেই নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়। এরপরেই সন্দেহেই দেহ সৎকার করতে গিয়ে তুলকালাম বেঁধে যায়। আম্বালার শ্মশানে পুলিশ ও ডাক্তারকে লক্ষ করে পাথর ছুঁড়তে থাকে জনতা। রিস্থিতি সামাল দিতে শূন্য গুলি ছুড়তে হয় পুলিশকে।

আরও পড়ুন: করোনা: একের পর এক পুলিশ কর্মীর মৃত্যু, মুম্বইয়ে নতুন নির্দেশিকা জারি

সিভিল সার্জেন ডা. কুলদীপ সিং জানিয়েছেন, ‘ওই বৃদ্ধার অ্যাস্থমা ছিল, সোমবার সকাল থেকে অবস্থার অবনতি হয়। চিকিত্‍‌সার মাঝেই মৃত্যু হয় তাঁর। তাঁর কোভিড পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। সব নিয়ম মেনে আমরা দেহ ছাড়ি। প্রশাসনের নির্দিষ্ট করা শ্মশানে দেহ সত্‍‌কারের জন্য পাঠানো হয়।’

পুলিশ জানিয়েছে, সৎকারে অকারণ বাধা দেন গ্রামবাসীরা। আম্বালার ডিএসপি রাম কুমারের কথায়, ‘সব সুরক্ষার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে বোঝানোর চেষ্টা করি আমরা। কিন্তু তাঁরা শুনতে রাজি হননি। এরপরই তাঁরা ডাক্তার ও পুলিশকর্মীদের দিকে পাথর ছুড়তে শুরু করেন। তাঁরা অ্যাম্বুলেন্সও ভেঙে ফেলেন। তাঁদের ছত্রভঙ্গ করতে আমাদের ব্যবস্থা নিতে হয়।’

Related Articles

Back to top button
Close