fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

তীব্রতা হারাতে শুরু করেছে মারণ ভাইরাস করোনার দাপট! এমনই দাবি বিশেষজ্ঞদের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: কমতে পারে মারণ ভাইরাস করোনার প্রকোপ। খুশির খবর শোনাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। বিশেষজ্ঞদের কথায় গত মাস থেকেই তীব্রতা হারাতে শুরু করেছে ভাইরাসটি। এমনকী এই মারণ ভাইরাস আটকাতে আর ভ্যাকসিনের আর প্রয়োজন নেই।
ইতালির সংক্রামক ব্যাধি ক্লিনিক পোলিক্লিনিকো স্যান মার্টিনোর প্রধান অধ্যাপক মাত্তিও বাসেত্তি ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, গত মাস থেকেই ভাইরাসটি তীব্রতা হারাতে শুরু করেছে।
রোগির সংখ্যা কমে আসার অর্থ ভাইরাসটির পুনরায় ফিরে আসা ঠেকাতে ভ্যাকসিনের আর দরকার নাও হতে পারে।
অধ্যাপক মাত্তিও বাসেত্তি আরও জানান, ভাইরাসটির তীব্রতায় পরিবর্তন এসেছে। মার্চ এবং এপ্রিলের শুরুর দিকে ভাইরাসটির বৈশিষ্ট্য পুরোপুরি ভিন্ন ছিল। ওই সময় জরুরি বিভাগে যারা এসেছিলেন তাদের সামলাতে হিমশিম খেতে হয়েছে চিকিৎসকদের। তাদের অক্সিজেন, ভেন্টিলেশনের দরকার ছিল। অনেকে নিউমোনিয়ায় ভুগতেন।
তিনি বলেন, গত চার সপ্তাহে ভাইরাসটির তার নিজের রূপের পরিবর্তন করেছে। বর্তমানে শ্বাসযন্ত্রের ট্র্যাক্টের ওপর কম চাপ ফেলছে ভাইরাসটি। হয়তো ভাইরাসটির কোনও জেনেটিক মিউটেশনের কারণে এটি হচ্ছে। যদিও এখনও বৈজ্ঞানিকভাবে এটি প্রমাণিত হয়নি। আমরা এখন রোগটি সম্পর্কে আগের চেয়ে বেশি সচেতন ও সামলাতে সক্ষম হয়ে উঠেছি।

বাসেত্তি বলেন, মার্চ এবং এপ্রিলে ভাইরাসটি প্রকোপ খুব বেশি ছিল। ভাইরাসটি মিউটেশন ঘটিয়েছে। কারণ, ভাইরাসটির বিরুদ্ধে আমাদের শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা সাড়া দিচ্ছে। লকডাউন, মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখায় এখন ভাইরাল লোড কমে গেছে। এটি কেন ভিন্ন ধরনের আচরণ করছে সেটি নিয়ে আমাদের গবেষণা করতে হবে।
সম্ভবত ভ্যাকসিন ছাড়াই ভাইরাসটি পুরোপুরি শেষ হয়ে যাবে।

আমাদের সংক্রমণ এবং সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা কমে এসেছে। এর ফলে ভাইরাসটি নিজ থেকেই বিদায় নিতে পারে।

Related Articles

Back to top button
Close