fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৬ লক্ষ পার করল! ফের ব্রিটেনে লকডাউন ঘোষণার সিদ্ধান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: কমার কোনও লক্ষণ নেই। বেড়েই চলছে করোনা দাপট। বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশগুলি এই মারণ ভাইরাসের কাছে হার মানছে। ক্রমশ গোটা বিশ্ব এক ভয়াবহ অবস্থার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। তার আঁচ ইতিমধ্যেই গোটা বিশ্ব পেতে শুরু করেছে। এর এই অবক্ষয়ের শেষ কোথায় তা কারুর জানা নেই।

কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি পার করছিল। এবার মৃতের সংখ্যাও ৬ লক্ষ পেরিয়ে গেল। যা গোটা বিশ্বের কাছে আতঙ্ক।
সারা বিশ্বে এ যাবৎ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১,৪৪,২৫,৮৬৫ জন। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৬,০৪,৯১৭ জনের। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮৬,১২,১৯২ জন।

আরও পড়ুন: মরুরাজ্যে অডিও টেপ কাণ্ড নিয়ে সরব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক, রাজস্থান সরকারের কাছে রিপোর্ট তলব

বিশ্বের কোভিড পরিসংখ্যানে শীর্ষ তালিকায় রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আমেরিকায় এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮,৩৩,২৭১ জন। কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ১,৪২,৮৭৭ জনের। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ১৭,৭৫,২১৯ জন।

দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা মোট ২০,৭৫,২৪৬। এখনও পর্যন্ত করোনার প্রভাবে ব্রাজিলে মারা গিয়েছেন ৭৮,৮১৭ জন। সুস্থ ১৩,৬৬,৭৭৫ জন।

তৃতীয় স্থানে রয়েছে এশীয় দেশ ভারত। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০,৭৭,৮৬৪। কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ২৬,৮২৮ জনের। সংক্রমণ সারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬,৭৭,৬৩০ জন।
চতুর্থ স্থানে রয়েছে রাশিয়া। এখানে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭,৬৫,৪৩৭ জন। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ১২,২৪৭ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৫,৪৬,৮৬৩। পঞ্চম স্থানে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৩,৫০,৮৭৯। এখনও পর্যন্ত করোনার প্রভাবে এখানে মারা গিয়েছেন ৪৯৪৮ জন। সংক্রমণ সারিয়ে সুস্থ হয়েছেন ১,৮২,২৩০ জন।

আরও পড়ুন: মরুরাজ্যের রাজনীতিতে একের পর এক নাটকীয় মোড়… খোঁজ নেই শচীন পাইলটের ১৮ কংগ্রেস বিধায়কের!

এই অবস্থায় করোনার সংক্রমণ রুখতে ফের নতুন করে ব্রিটেনে লকডাউন ঘোষণা করতে চলেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

মৃতের সংখ্যাতেও শীর্ষে রয়েছে আমেরিকা। তারপর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল। তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইউরোপীয় দেশ ব্রিটেন। মৃতের সংখ্যার নিরিখে চতুর্থ স্থানে রয়েছে মেক্সিকো। পঞ্চম স্থানে রয়েছে ইতালি।

Related Articles

Back to top button
Close