fbpx
কলকাতাহেডলাইন

লকডাউন উত্তর পর্বে ইলেকট্রিক গাড়ির চাহিদা বাড়ছে

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: আনলক ৪ পর্বে এসেও সমস্যা রয়ে গিয়েছে গণ পরিবহণে। লকডাউন পর্ব মিটিয়ে আনলক ১ থেকেই বেসরকারি বাস, মিনিবাস নিয়ে জট খুলতে ব্যর্থ রাজ্য সরকার। অন্যদিকে সরকারি বাসও যথেষ্ট পরিমাণে না থাকায় সমস্যায় পড়েছেন আমজনতা। অনেকেই তাই এই পরিস্থিতিতে নিজস্ব গাড়ির উপর ভরসা করাই শ্রেয় মনে করেছেন। একটি সর্বভারতীয় সমীক্ষায় ধরা পড়েছে উপভোক্তারা ইলেকট্রিক গাড়ির প্রতি ঝুঁকছেন। ফলে ভারতে ইলেকট্রিক গাড়ির ভালো বাজার তৈরি হয়েছে।

ঘটনা হল লোকাল ট্রেন এখনও চালু হয়নি, মেট্রো চালু হতে পারে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে সংক্রমণ রুখতে বিভিন্ন বিধি নিষেধ জারি করা হচ্ছে মেট্রো যাত্রীদের জন্য। যেখানে আসনের বুকিং করতে হবে যাত্রীকে। আসন ফাঁকা থাকলে তবেই তিনি মেট্রোয় উঠতে পারবেন। এই অবস্থায় মেট্রো চালু হলেও কতোজন মেট্রোয় সওয়ার হতে পারবেন তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। অন্যদিকে যথেষ্ট সংখ্যক বাস না থাকায় কোভিড বিধি মেনে বাসে যাতায়াত করা ঝুঁকির হয়ে উঠছে। এই অবস্থায় নিত্যযাত্রীরা নিজস্ব গাড়ির উপর ভরসা করছেন। আর চাহিদা বাড়ছে ইলেকট্রিক গাড়ির।
সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে উপভোক্তারা ইলেকট্রিক গাড়ি কেনার দিকে ঝুঁকছেন। কেন এই প্রবণতা?

আরও পড়ুন: রাশিয়া, চিন, আমেরিকার পরে এবার হাইপারসনিক মিসাইল পরীক্ষা হল ভারতে, প্রশংসা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর

সমীক্ষায় ধরা পড়েছে প্রথম কারণ হল সাধ্যের মধ্যে দাম, মাত্র ২৩, ০০,০০০ টাকা। তাছাড়া চার্জ করতেও কম সময় লাগে ৩৫ মিনিট। আর একবার চার্জ করলে ৪০১ কিলোমিটার দৌড়বে গাড়ি। গাড়ি শিল্পের সঙ্গে যুক্ত মহল মনে করছে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ হলো এই ধরনের গাড়ি পরিবেশ বান্ধব। ইলেকট্রিক গাড়ি কম কার্বন নিঃসরণ করে। সব মিলিয়ে ভারতে ইলেকট্রিক গাড়ির বাজার নিয়ে আশাবাদী গাড়ি শিল্পের সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্ট মহল।

Related Articles

Back to top button
Close