fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সুন্দরবনের বিধ্বস্ত এলাকায় ত্রাণ বিলি করলেন স্বয়ং ডেপুটি হুইপ

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: বসিরহাট মহকুমা সুন্দর বনের হিঙ্গলগঞ্জ ও হাসনাবাদে দুর্গত এলাকায় ত্রাণ বিলি করলেন স্বয়ং রাজ্য বিধানসভা ডেপুটি হুইপ পার্থ ভৌমিক। সঙ্গে ছিলেন জেলা সাধারণ সম্পাদক বাদল মিত্র, জেলা পরিষদের কৃষি কর্মদক্ষ বুরহানুল মুকাদ্দিন, রাজ্য তৃণমূল সাধারণ সম্পাদক সমীক রায় অধিকারী, হিঙ্গলগঞ্জ এর বিধায়ক দেবেশ মন্ডল, চেয়ারম্যান এটিএম আব্দুল্লা (রনি)হাসনাবাদ বিডিও অরিন্দম মুখার্জী,ও জেলার তৃণমূল যুব কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা। সব মিলিয়ে সুন্দরবনের প্রায় কুড়ি হাজার মানুষকে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানিও জল, জল বাহিত রোগ সাবধানতার জন্য বিভিন্ন রকম ওষুধ, ব্লিচিং পাউডার, শুকনো খাবার গৃহহীনদের জন্য নতুন বস্ত্র, দুর্গতদের হাতে তুলে দেন।

এখনো পর্যন্ত বসিরহাট মহকুমার সন্দেশখালি, হিঙ্গলগঞ্জ, হাসনাবাদ, মিনাখা, হাড়োয়া সহ বেশ কিছু ব্লকের বহু গ্রাম জলের তলায়। সবচেয়ে সমস্যা দেখা দিয়েছে যেমন বিদ্যুত, অন্যদিকে পানীয় জল। সেই সমস্যা মেটাতে আজ রবিবার দুপুর বেলা সুন্দরবনের বিভিন্ন গ্রামে পরিদর্শনে রাজ্য বিধানসভার ডেপুটি হুইপ। তিনি দুর্গত দের সঙ্গে কথা বলেন, অন্যদিকে তাদের হাতে দৈনন্দিন জীবনের ১৫ দফা জল খাবার ওষুধ তুলে দেন। প্রায় কুড়ি হাজার পরিবারের হাতে খাবার তুলে দেন।

আরও পড়ুন: মালদায় নিজের বিয়ে নিজেই রুখে দিল নাবালিকা

পাশাপাশি এদিন তিনি বলেন, বিগত২০০ বছরের এই বিপর্যয় বাংলা কোনদিন দেখিনি। রীতিমত প্রকৃতির সঙ্গে লড়াই করছে। আমাদের লড়াই করে বেঁচে থাকতে হবে। এ লড়াই যেমন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করছেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তার একজন প্রতিনিধি হিসেবে আসেন। সবাই মিলে মানুষের সঙ্গে নিয়ে লড়াই করে বাংলায় স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনবো। চ্যালেঞ্জ আমরা গ্রহণ করেছি , এই বিপর্যয়ের মধ্য কিছু তো সমস্যা থাকবে। সেগুলো কাটিয়ে উঠে আবার বাংলা স্বাভাবিক হবে।

Related Articles

Back to top button
Close