fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

অন্যদের পিছনে ফেলে করোনা সংক্রমণ পরীক্ষার জন্য এগিয়ে গেল এই জেলাটি

জেলা প্রতিনিধি, কোচবিহার: নিন্দুকদের মুখে ঝামা ঘষে দিয়ে উত্তরবঙ্গের অন্যান্য জেলার নিরিখে রেকর্ড সংখ্যক সংক্রমণ পরীক্ষা করে নজির তৈরি করল কোচবিহার জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। কোচবিহার জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডক্টর সুমিত গাঙ্গুলি জানান, মার্চ মাসের ১৮ তারিখ প্রথম কোচবিহার থেকে পরীক্ষার জন্য নমুনা উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সরবরাহ করা হয়েছিল। তারপর থেকে লাগাতার নমুনা পাঠানো হয়েছে।

আমরা প্রতিদিন গড়ে ৩০০ করে নমুনা পাঠিয়ে যাচ্ছি। আজকের দিন পর্যন্ত দুই হাজারের বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়ে গেছে। এখনও পর্যন্ত কোচবিহারে সংক্রমণের সংখ্যা শূন্য। যে কারণে আমরা এখনও প্রথম পেজে রয়েছি। আমাদের এখানে অর্থাৎ কোচবিহার জেলায় কমিউনিটি স্প্রেড হয়নি।

শনিবার জেলার স্বাস্থ্য কর্মীদের পাশাপাশি পুলিশ কর্মী যারা নাকা চেকিংয়ে ডিউটি করেন এবং সাংবাদিক যারা সরাসরি কর্মক্ষেত্রে অন্যান্য মানুষের সংস্পর্শে আসছেন তাদের পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এদিন মোট ৩০ জন সাংবাদিকদের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো। পুলিশ কর্মীদের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার সানা আখতার, ডিএসপি হেডকোয়াটার সমীর পাল এর নমুনা পাঠানো হয়েছে।

এদিন ডেপুটি মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ওয়ান বিশ্বজিৎ রায় সকলের নমুনা নিজে হাতে সংগ্রহ করেন। তিনি বলেন, শুধুমাত্র কোচবিহার সদর মহকুমাই নয় প্রতিটি মহাকুমা এবং ব্লক থেকে স্বাস্থ্যকর্মীদের নমুনা সংগ্রহের কাজ চলছে।

রাজনৈতিক বাকবিতণ্ডায় একাধিকবার উঠে এসেছে নমুনা পরীক্ষার ইতিহাস, বারবার অভিযোগ উঠে এসেছে কোচবিহার জেলায় নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে না। কিন্তু যে সমস্ত স্বাস্থ্যকর্মীরা নিত্যদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে কাজ করে যাচ্ছেন তাদের কথা কি একবারও ভাবা হচ্ছে।

কোচবিহারের সমস্ত স্বাস্থ্যকর্মী নিঃশব্দে নিজেদের কাজ করে যাচ্ছেন, হাজার গঞ্জনা বঞ্চনা কে উপেক্ষা করে তারা তাদের পরিষেবা দিয়ে যাচ্ছেন সাধারন মানুষকে। হয়তো ঠিক সেই কারণেই এখনও পর্যন্ত কোচবিহার জেলায় সংক্রমণ সংখ্যা শূন্য। আর সাধারণ মানুষের দিকে অবশ্যই নজর দিয়ে রেখেছেন কোচবিহার পুলিশ প্রশাসন। এই যোদ্ধাদেরকে সম্মান জানান এই যোদ্ধাদের প্রতি কৃতজ্ঞ থাকুন।

Related Articles

Back to top button
Close