fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

লালফৌজের চোখ রাঙানি আর নয়, দক্ষিণ প্যাংগং লেকের দখল নিল ভারতীয় সেনা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: সীমান্তে চিনের সঙ্গে ভারতের সংঘাত অব‍্যাহত। লালফৌজের আর চোখ রাঙানী নয়। উত্তর প্যাংগং লেক সংলগ্ন এলাকায় চিনা বাহিনীর আগ্রাসন আগেই লক্ষ্য করা গিয়েছিল। গত শনিবার রাত থেকে প্যাংগং লেকের দক্ষিণের উঁচু পাহাড়ি এলাকাতেও ঢুকে পড়ে পিপলস লিবারেশন আর্মি। দু’তরফে সংঘাতের খবরও সামনে আসে। সূত্রের খবর, প্যাংগং লেক সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় এখন পুরোপুরি দখল নিয়েছে ভারতের সেনাবাহিনী। পিছু হটতে বাধ্য হয়েছে লাল ফৌজ।

লাদাখ সীমান্তে শান্তি ও সুস্থিতি ফিরিয়ে আনার জন্য চুসুল সীমান্ত লাগোয়া চিন নিয়ন্ত্রিত মলডোতে দুই দেশের সেনা কম্যান্ডারের মধ্যে দফায় দফায় বৈঠক হয়েছে। কিছুদিন আগেই ফের বৈঠক হয় ভারতীয় সেনার ১৪ নম্বর কোরের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল হরেন্দ্র সিং এবংচিচনের শিনজিয়াং মিলিটারি ডিস্ট্রিক্ট কমান্ডার মেজর জেনারেল লিউ লিনের। জানা গিয়েছিল, সেই বৈঠকে প্যাংগং লেক ও ফিঙ্গার এলাকাগুলি থেকে পিছু হটতে বলা হলে চিন আপত্তি করে। বৈঠকের পরেও পূর্ব লাদাখের গালওয়ান, গোগরা, হট স্প্রিং, দেপসাং সমতলভূমি, প্যাংগং লেক ও পাহাড়ির খাঁজ বা ফিঙ্গার পয়েন্টগুলোতে চিনের বাহিনীকে ঘাঁটি গেড়ে থাকতে দেখা যায়। নতুন করে সীমান্তে উত্তেজনা তৈরির পরে আজ ফের দুই দেশের সেনা কম্যান্ডার পর্যায়ের বৈঠক চলছে। লাদাখ সীমান্তে দুই দেশের যুদ্ধবিমানকেই চক্কর কাটতে দেখা গেছে।

সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরে আলোচনার মাঝেই নতুন করে সীমান্তে উত্তেজনা ছড়ায় চিন। ভারতীয় নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকায় ঢুকে জমি দখলের চেষ্টাও করে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে, ভারতের বাহিনী আগে থেকেই চিনের গতিবিধির উপরে নজর রাখছিল। এমন পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে তার আঁচ করেই প্রস্তুত ছিলেন জওয়ানরা। তাই মোক্ষম সময় চিনের সেনার তৎপরতা রুখে দেওয়া গেছে। যদিও চিন দাবি করেছে, তারা সীমান্তে কোনওরকম আগ্রাসন দেখায়নি। উল্টে ভারতীয় সেনাদের বিরুদ্ধেই সীমান্ত পার হয়ে উত্তেজনা ছড়াবার অভিযোগ তুলেছে।

Related Articles

Back to top button
Close