fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

কোভিড যুদ্ধে পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক হচ্ছে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: ২৪ ঘন্টা আগেই নিজস্ব হাসপাতালে ভর্তিদের প্লাজমা থেরাপির জন্য রাজ্যে বেসরকারি হাসপাতালের তরফে প্রথম প্লাজমা ব্যাঙ্ক গড়ে তোলার কথা ঘোষণা করেছিল মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল। এবার পূর্ব ভারতের প্রথম সরকারি প্লাজমা ব্যাঙ্ক তৈরির কথা ঘোষণা করল কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে স্বাস্থ্যভবনে।

আরও পড়ুন:যুদ্ধের আবহ! সীমান্তে যুদ্ধবিমানসহ অতিরিক্ত ৩০ হাজার সেনা মোতায়েন করল ভারত

রবিবার কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালকে এই বিষয়ে চূড়ান্ত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। পূর্ব ভারতের অন্যান্য রাজ্যে বেসরকারি হাসপাতালে এই উদ্যোগ নেওয়া হলেও সরকারি হাসপাতালে এমন উদ্যোগ প্রথম বলেই দাবি স্বাস্থ্য ভবনের।

প্রসঙ্গত, করোনার কোনও নির্দিষ্ট ভ্যাকসিন এখনও বেরোয়নি। কিন্তু করোনা আক্রান্তদের সুস্থ করার লক্ষ্যে দেশ জুড়ে প্লাজমা থেরাপির ট্রায়াল শুরু হয়েছে। আর তাতে পিছিয়ে নেই কলকাতাও। কলকাতাতেই দেশের মধ্যে প্রথম ভেন্টিলেশন সাপোর্টে থাকা করোনা আক্রান্তদের শরীরে ট্রায়াল হিসেবে প্লাজমা প্রয়োগ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:সীমান্তে গ্যাস সিলিন্ডারের মধ্যে ইয়াবা ট্যাবলেট পাচারের চেষ্টা, গ্রেফতার মহিলা পাচারকারী

বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে প্লাজমা থেরাপি প্রথম শুরু হলেও রাজ্যে জুন মাসের শেষ সপ্তাহে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ইনস্টিটিউট অফ হেমাটলজি অ্যান্ড ব্লাড ট্রান্সফিউশন বিভাগে করোনার সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগির শরীর থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করে করোনা আক্রান্ত রোগীকে সুস্থ করে তোলে এই হাসপাতাল।তবে আনলক ফেজে দেশে বেড়ে চলা সংক্রমণ নিয়ে যথেষ্ট চিন্তা বেড়েছে দেশ তথা রাজ্য সরকারের।

রবিবারেই এখনও পর্যন্ত রাজ্যে একদিনে আক্রান্তের সর্বাধিক রেকর্ড ৮৯৫ জনের তথ্য সামনে এসেছে। আক্রান্তের নিরিখে বিশ্বে ভারত এখন তৃতীয় স্থানে। এই পরিস্থিতিতে করোনা রোগিকে সুস্থতার লক্ষ্যে প্লাজমা থেরাপি সংক্রান্ত যাবতীয় আগাম প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে চাইছে স্বাস্থ্যভবন।

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ব্লাড ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগের প্রধান প্রসূন ভট্টাচার্য বলেন, “এই হাসপাতালে হাওয়া প্লাজমা থেরাপির জন্য আমরা কিছুদিন আগে থেকেই প্লাজমা সংগ্রহের কাজ শুরু করে দিয়েছিলাম। এখন সরকারি নির্দেশে প্লাজমা ব্যাঙ্ক তৈরির কাজ শুরু করতে চলেছি। তবে তার জন্য অনেক বড়সড় পরিকাঠামো দরকার। সেই পরিকাঠামো কীভাবে তৈরি করা হবে, তার-ই পরিকল্পনার কাজ শুরু হয়েছে। সব ঠিকঠাক থাকলে দ্রুত এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হবে।

Related Articles

Back to top button
Close