fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

হিন্দুরাষ্ট্রের ভিত্তিপ্রস্তর…..রামমন্দিরের ভূমিপুজো নিয়ে দাবি অযোধ্যাবাসীর

রক্তিম দাশ, কলকাতা: রামমন্দিরের শিলান্যাস শুধু একটি মন্দির তৈরির কাজ নয়, এর মধ্য দিয়ে হিন্দুরাষ্ট্রের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন হতে চলেছে আগামী ৫ আগস্ট। এমনটাই মনে করছেন অযোধ্যা নিবাসী সাধু-সন্তরা। তাঁদের এই বক্তব্যর মধ্য দিয়ে হিন্দুত্ববাদীদের হিন্দু রাষ্ট্র গঠনের দীর্ঘ দিনের আহ্বান ফের দেশজুড়ে সামনে চলে আসল বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেজ্ঞরা।

অযোধ্যায় রামমন্দির স্থাপনের আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত প্রতিটি মঠ এবং মন্দিরের প্রধানরা ইতিপূর্বেও বার বার হিন্দুরাষ্ট্রে দাবিকে সামনে তুলেছেন। রবিবার অযোধ্যার রামানুজ সম্প্রদায়ের মঠের প্রধান আচার্য বালমুকন্দ মহারাজ বলেন, ‘রামজন্ম ভূমির শিলান্যাসের অর্থ বিশ্বজুড়ে নবরূপে হিন্দুত্ববাদের পতাকাকে তুলে ধরা। এই মন্দির স্থাপনে কাজ শুরু হওয়ার মধ্য দিয়ে আমাদের হিন্দুদের ৫০০ বছরের পরাধীনতার গ্লানি ঘুচতে চলেছে। বাবর যে হিন্দুরাষ্ট্র ধ্বংস করেছিল, তা এতদিন পরে পুননির্মাণ কাজ শুরু হতে চলেছে। এই শিলন্যাস হিন্দু রাষ্ট্র গঠনের প্রথম পদক্ষেপ বলেই মনে করছেন অযোধ্যাবাসী।’

আরও পড়ুন:সময়ের চেয়েও দ্রুতগতিতে বাড়ছে সংক্রমণ, ১৮ লাখের গণ্ডি পার করল আক্রান্তের সংখ্যা

অযোধ্যার রামমন্দিরের প্রধান পুরোহিত সত্যেন্দ্র দাস মহারাজ বলেন, ‘প্রাচীন হিন্দু শাস্ত্রের ঐতিহ্য পরম্পরা মেনে বাস্তু শাস্ত্র মতে রাম মন্দির নির্মাণ হতে চলেছে। বাস্তু শাস্ত্র মতে যেহেতু এই মন্দির নির্মিত হচ্ছে তাই এর প্রভাব পড়বে অযোধ্যা সহ ভারতের উন্নয়ন ও আর্থিক বিকাশে। এমনটাই মনে করছেন দেশের বিখ্যাত সাধু-সন্তরা। আমিও তাই মনে করি। ভগবান রাম যে হিন্দুরাষ্ট্রের স্থাপনা করেছিলেন। যা আমরা রামরাজ্য নামে জানি, তা এই মন্দির নির্মাণের মধ্য দিয়ে শুরু হতে চলেছে। অযোধ্যাবাসী সহ সমগ্র বিশ্বের হিন্দুরা যে স্বপ্ন দেখেছিলেন তা আজ বাস্তবে রূপ নিচ্ছে।’

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের যুগ্ম সম্পাদক সুরেন্দ্র জৈন সাধু-সন্তদের এই অভিমতকে সমর্থন করে যুগশঙ্খকে এদিন বলেন, ‘ভারত হিন্দুরাষ্ট্র প্রথম থেকেই আছে বলে আমরা মনে করি। কিন্তু এই রাষ্ট্র যেভাবে আছে তাকে নতুন করে ভগবান রামের আর্দশের গড়ার সূচনা হতে চলেছে। এই রাম রাজত্বের পথে ভারতের এগিয়ে যাওয়ার প্রথম মজবুত পদক্ষেপ। রাম মন্দির নির্মাণ আসলে রামরাজ্যর ভিত্তিপ্রস্থ স্থাপনের সূত্রপাত। রামমন্দির নির্মাণ আন্দোলনের প্রথম থেকেই এই লক্ষ্য ছিল। আমি দেশবাসীকে বলছি রামরাজ্য আমাদের দরজায় এখন কড়া নাড়ছে। শুধু মাত্র সময়ের অপেক্ষা।’

আরও পড়ুন:এবার করোনা আক্রান্ত উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সভাপতি স্বতন্ত্র দেব সিংহ

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের অযোধ্যার কার্যকর্তা কৌশিক প্রামাণিক বলেন, ‘এটা ঠিক অযোধ্যাবাসী হিন্দু রাষ্ট্রের পক্ষে। এখানে সমাজবাদী, বিএসপি যত রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরা আছেন তাঁরা মনের দিক থেকে রামমন্দিরের পক্ষে প্রথম থেকেই আছেন। তাই সবাই এখন খুব খুশি। রামরাজ্য গড়া আমাদের সুপ্রাচীন হিন্দু সংস্কৃতির অঙ্গ। এখানে সাধু-সন্তরাও তাঁদের প্রবচনে সবসময় রামরাজ্যের কথা বলে থাকেন। তাঁরাও চান ভারতে রামরাজ্য প্রতিষ্ঠিত হোক’।

Related Articles

Back to top button
Close