fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিশ্ব ব্যাঘ্র দিবসে সুখবর, পৃথিবীর ৭০ শতাংশ বাঘ এদেশেই

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: পৃথিবীতে যতো বন্য বাঘ রয়েছে তার ৭০ শতাংশেরও বেশি রয়েছে ভারতে। ২০১৮সালে বাঘশুমারিতে উঠে আসা তথ্য অনুযায়ী ভারতীয় বনাঞ্চলে আনুমানিক ২,৬৯৭টি বাঘ রয়েছে। যার স্বীকৃতি হিসাবে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম উঠেছে ভারতের।

কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রী প্রতিমন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকার বলেছেন,’ বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধিই বুঝিয়ে দেয় দেশে প্রকৃতির ভারসাম্য ঠিক আছে। কারণ ভারতের মতো দেশে বন্যপ্রাণ বা জঙ্গল সংরক্ষণে প্রধান সমস্যা হলো জমি। তারপরেও সেই কাজে ছেদ পড়েনি।’
পরিবেশবিদরা বলছেন, এই মুহূর্তে দেশের ৫০টি ব্যাঘ্র সংরক্ষণ প্রকল্পে বাঘের সংখ্যা উৎসাহব্যঞ্জক। পরিসংখ্যান বলছে ২০০৬ থেকে ২০১৮ র মধ্যে ভারতে বাঘ বেড়েছে ৬ শতাংশ। বিশ্বের ভয়ঙ্কর সুন্দর রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের আবাসভূমি সূন্দরবনেও বেড়েছে বাঘের সংখ্যা। স্বাভাবিক কারণেই এবার ব্যাঘ্র দিবসের জাঁকজমক বেশি হওয়ার কথা ছিল। প্রসঙ্গত ২০১০ সালে রাশিয়ার সেন্ট পিটাসসবার্গে বিশ্ব বাঘ সম্মেলনে ২৯ জুলাই দিনটাকে ‘ বিশ্ব ব্যাঘ্র দিবস’ হিসাবে পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু বাধ সেধেছে করোনা পরিস্থিতি। ভরসা তাই ডিজিটাল মাধ্যম।

আরও পড়ুন:করোনা মোকাবিলায় লকডাউনের তৃতীয় দিনে কড়া মালদা পুলিশ, আটক ১০০-র বেশি

শহরের বন্যপ্রাণ প্রেমী সংগঠন ‘ শের’ স্বল্প দৈর্ঘ্যের একটি তথ্যচিত্র তৈরি করেছে। ছবিটির শিরোনাম ‘ মানুষের হৃদয়ই বাঘের সেরা বসতি।’ দেশের বিভিন্ন ব্যাঘ্র প্রকল্প ও সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বাঘ বাঁচানোর লড়াইয়ে শামিল বনকর্মীদের উৎসর্গ করা হয়েছে এই ছবিটি।
সংস্থার কর্ণধার তথা রাজ্য বন্যপ্রাণ উপদেষ্টা পর্ষদের সদস্য জয়দীপ কুণ্ডু বলেন, ‘বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ, বাঘ সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তোলার পাশাপাশি উপযুক্ত প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র ছাড়াই বনপ্রেমী মানুষ দুর্গম জঙ্গলে যে ভূমিকা পালন করছেন তাকেও কুর্ণিশ জানাই।’
তবে ব্যাঘ্র দিবসে পশ্চিমবঙ্গের বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্প পরিবেশ প্রেমীদের কাছে যথেষ্ট হতাশার কারণ। গতবছর যে বাঘসুমারি করা হয় তাতে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ছিল ৮৮। এ বছর তার বেড়ে হয়েছে ৯৬। অথচ বক্সার জঙ্গলে একটিও বাঘ নেই। এছাড়াও উত্তরপূর্বের অন্তত তিনটি ব্যাঘ্র প্রকল্প বাঘ শূন্য। সেগুলিতে ফের বাঘের সংসার গড়ে তুলতে সরিস্কা, পান্নার মতো বাঘ প্রতিস্থাপনের পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close