fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিদ্যালয়ের প্রকাণ্ড গাছ কেটে ফেলার ঘটনার প্রশাসনের দ্বারস্থ হলেন প্রধান শিক্ষক

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: করোনার কারণে বিদ্যায়ের পঠন পাঠন বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি হয়েছে। সেই কারণে বন্ধ থাকছে পূর্ব বর্ধমানের মেমারির কলানবগ্রামের অরবিন্দ প্রকাশ বিদ্যায়তন জুনিয়র হাই স্কুল। সেই ফাঁকে কেউ বা কারা বিদ্যালয় চত্ত্বরে থাকা প্রায় ৭০ বছরের পুরনো প্রকাণ্ড একটি আম গাছ কেটে ফেলেছে। কাটা গাছ নিয়ে পালানোরও মতলব ছিল তাদের।মঙ্গলবার বেলায় মিড ডে মিল দেবার জন্য বিদ্যালয়ে গিয়ে এই ঘটনা দেখতে পান প্রধান শিক্ষক শ্রীকান্ত গড়াই ।গাছ কাটার ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে তিনি বুধবার মেমারি ১ ব্লকের বিডিওকে ই-মেলে অভিযোগ জানিয়েছেন। গাছটি স্কুলের সম্পত্তি বলে দাবি করে তা রক্ষা করার জন্য প্রশাসনের কাছে আবেদন রেখেছেন প্রধান শিক্ষক।

অরবিন্দ প্রকাশ বিদ্যায়তন জুনিয়র হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক শ্রীকান্ত গড়াই এদিন বলেন , ছাত্র ছাত্রীদের মিডে ডে মিল দেবার জন্য মঙ্গলবার বেলায় তিনি বিদ্যালয়ে যান। তখনই তিনি দেখেন , বিদ্যালয়ের ঘেরা জায়গায় ছাত্রাবাসের কাছে থাকা প্রাকাণ্ড আম গাছটির কাটা গুঁড়ি পড়ে রয়েছে। গাছটির ডালপালা কেটে সেই জায়গাতেই আলাদা করে রাখা হয়েছে। তা দেখেই পরিস্কায় বোঝা গিয়েছে কেউ বিক্রি করার উদ্দেশে গাছটি কাটা করিয়েছে।

প্রধান শিক্ষক জানান , তাঁদের বিদ্যালয়টি ১২ বিঘা জায়গার উপর রয়েছে। কোনও একটি চক্র স্কুলের সম্পত্তি নষ্ট করে দিতে চাইছে। তারা পূর্বেও স্কুলের একটা বড় গাছ কেটে নিয়েছিল। প্রধান শিক্ষক এদিন বলেন , বিদ্যালয়ের গাছ যারা অন্যায় ভাবে কেটেছে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তিনি প্রশাসনকে জানিয়েছেন।

যদিও এই ঘটনা নিয়ে স্থানীয়রা কেউ কোন মন্তব্য করতে চান নি। তাঁদের বক্তব্য জায়গা জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে বিদ্যালয়ের টানা পড়েন চলছে ।
গাছের প্রকৃত দাবিদার কে তার বিচার প্রশাসনই করতে পারবে বলে স্থানীয়রা মন্তব্য করেছেন ।

মেমারি ১ ব্লকের বিডিও বিপুল কুমার ঘোষ বলেন , ‘ঘটনা বিষয়ে মেমারি থানাকে তদন্ত করতে বলা হয়ে । প্রধান শিক্ষককেও মেমারি থানায় অভিযোগ জানাতে বলা হয়েছে ’।

Related Articles

Back to top button
Close