fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গশিক্ষা-কর্মজীবনহেডলাইন

উচ্চমাধ্যমিকে প্রাপ্ত সর্বোচ্চ নম্বর বাকি তিন পরীক্ষার নম্বর হিসেবে গণ্য হবে: উচ্চশিক্ষা দফতর

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: উচ্চমাধ্যমিকের প্রাপ্ত সর্বোচ্চ নম্বর বাকি তিন পরীক্ষার নম্বর হিসেবে গণ্য হবে। শুক্রবার রাতে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দিল উচ্চশিক্ষা পর্ষদ। এ ছাড়াও যারা পরীক্ষা দিতে চান তাদের ক্ষেত্রে পরীক্ষা দেওয়ার ও ব্যবস্থা থাকবে। তবে তা এখন-ই নয় পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে। অর্থাৎ এ পর্যন্ত উচ্চ মাধ্যমিকের যতগুলি পরীক্ষা হয়েছে তার সর্বোচ্চ নম্বর গড়ে দেওয়া হবে বাকী তিন পরীক্ষার ফল হিসাবে। ধরে নেওয়া যাক কোনও ছাত্র বা ছাত্রী যে লিখিত পরীক্ষাগুলি দিয়েছে তার মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বরকেই বাতিল পরীক্ষার নম্বর হিসাবে ধরা হবে। সেক্ষেত্রে কোনও ছাত্র বা ছাত্রী তার দেওয়া লিখিত পরীক্ষাগুলির মধ্যে সর্বোচ্চ ৯০ পেয়ে থাকে, তাহলে বাতিল হওয়া বিষয়ের পরীক্ষাগুলিতেও তাকে ৯০ই দেওয়া হবে।

রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে মাঝ পথেই বন্ধ করতে হয়েছিল উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা। কারণ পাল্লা দিয়ে বাড়ছিল করোনা সংক্রমণ। তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে জারি করা হয়েছিল লকডাউন। সেই পরীক্ষাগুলি জুলাই মাসে নেওয়ার কথা ভেবেছিল রাজ্য সরকার। কিন্তু শুক্রবার শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়ে দেন স্থগিত হয়ে যাওয়া তিনটি পরীক্ষাই বাতিল করা হল। বাতিল হওয়া পরীক্ষার নম্বর বিধি কী হবে তা নিয়ে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ আলোচনা করেছে। শুক্রবার রাতে সংসদের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। বাতিল হওয়া তিনটি পরীক্ষার নম্বর কীভাবে পাওয়া যাবে, তা নিয়ে ছাত্রছাত্রীদের মনে উদ্বেগ তৈরি হয়েছিল। সেই ধোঁয়াশা এতদিনে কাটল।

অন্যদিকে কোনও পরীক্ষার্থী মনে করতে পারে যে তার প্রস্তুতি অনুযায়ী বাতিল হওয়া তিনটি পরীক্ষায় হয়তো আরও বেশি নম্বর পেতে পারে। সেই সব ছাত্রছাত্রীদের জন্য বিকল্প পদ্ধতি ভেবে রেখেছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। সেক্ষেত্রে সেই ছাত্র বা ছাত্রীকে তার স্কুলের কাছে আবেদন জানাতে হবে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তবেই আবেদনকারীর আবারও পরীক্ষা নেওয়া হবে। তবে এই পদ্ধতিতে সামান্য আপত্তি রয়েছে একদল অভিভাবকের। তাঁদের মতে, পরীক্ষার ফলাফল বেরনোর পরই হয়তো অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে। সেক্ষেত্রে প্রত্যেক ছাত্রছাত্রীকে এখন বাতিল পরীক্ষা মূল্যায়নের ভিত্তিতে কলেজে ভরতি হতে হবে। তাই পরে লিখিত পরীক্ষা দিয়ে ভাল নম্বর পেলেও ভাল কলেজে ভর্তির সুযোগ মিলবে না। আগামী জুলাই মাসেই উচ্চমাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ হতে পারে।

 

Related Articles

Back to top button
Close