fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য পথে পথে ঘুরে ছবি এঁকে লকডাউন মানার বার্তা দিচ্ছেন গৃহবধূ

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমানঃ সংসারের দায়দায়িত্ব সামলে পথে নেমেই সবাইকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচার পথ দেখাচ্ছেন এক বধূ। তবে প্রশাসন কিংবা বিশেষজ্ঞদের কায়দায় পরামর্শ দিয়ে নয়। করোনার ভয়াবহতা নিয়ে পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের গোপালপুর গ্রামের বধূ রাখী মণ্ডলের রঙ তুলির আঁকিবুকি কিছুটা হলেও লকডাউন অমান্যকারীদের টনক নড়িয়ে দিয়েছে ।

আউশগ্রাম ২ ব্লকের রামনগর পঞ্চায়েত এলাকার মানুষজন বিভিন্ন পথ ধরে যাতায়াত করেন । সেই সব পথে রাখীদেবী রঙ তুলির টানে করোনার ভাইরাসের ভয়াবহতার বিষয়টি ফুটিয়ে তুলেছেন । পাশাপাশি পথ চিত্রের মাধ্যমেই তিনি সবাইকে লকডাউন পালনেরও বার্তাও দিয়েছেন। এই সব দেখে কিছুটা হলেও এখন খুব প্রয়োজন ছাড়া এলাকার মানুষজন আর বাইরে বের হওয়ার কথা মুখে আনছেন না। শিল্পী পরিবারের বধূ রাখীদেবীর এমন কর্মকাণ্ডের তারিফ না করে পারেননি প্রশাসনের কর্তারাও।

রাখী মণ্ডল এলাকার পরিচিত একজন অঙ্কন শিল্পী। প্রশাসনের শত অনুরোধ সত্ত্বেও কিছু মানুষের লকডাউন না মানার প্রবনতা দেখে তিনি হতাশ হন। এরপরেই তিনি পথ চিত্রের মাধ্যমেই সবার মধ্যে সচেতনতা জাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন । এই কাজেও রাখীদেবী নিজের সেই রঙ তুলিকেই বেছে নেন। এলাকার পাণ্ডুক হাটতলার পিচ রাস্তা, দীননাথ পুর স্কুলের সামনের রাস্তায়, পঞ্চায়েত অফিসের সামনের রাস্তায়, মোড়বাঁধ গঞ্জের ভিডাব্লিউ রাস্তা ও ছোড়া কলোনির বাজার এলাকার রাস্তায় তিনি করোনা সচেতনতায় ছবি এঁকেছেন। একই সঙ্গে লকডাউন মেনে চলার বার্তাও তুলে ধরেছেন।

এই কাজে রামনগর অঞ্চল তৃণমূলের সদস্যরা এবং তাঁর লোক গবেষক স্বামী রাধামাধব মণ্ডল তাঁকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে । আউশগ্রামের ছোঁড়া পুলিশ ফাঁড়ির বড়ো বাবু রণজিৎ মুখোপাধ্যায় বলেন, “এই শিল্পী পরিবারের বধূ নিজস্ব উদ্যোগে এমন সচেতনতার কাজে এগিয়ে এসেছে দেখে আমরা আনন্দিত। পুলিশের তরফে আমরাও রাখী মণ্ডলকে যথাসাধ্য সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছি।” রামনগর অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেস কমিটির সভাপতি আসগর শেখ বলেন, “রাখীদেবী রুচিশীল শিল্পী পরিবারের বধূ । তিনি নিজেও শিল্লী। ওনার স্বামী রাধামাধব মণ্ডল জেলার বিশিষ্ঠ লোক গবেষক । তিনি তাঁর স্ত্রীর ভাবনার কথা আমাদের জানান। আমারও রাখীদেবীকে সব রকম ভাবে সহযোগীতা করেছি । আউশগ্রাম ২ নং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সৈয়দ হায়দার আলী বলেন, “রাখী মণ্ডলের কর্মকাণ্ড সত্যি প্রশংসনীয় ।লক ডাউন মানার ব্যাপারে রাখিদেবীর পথ চিত্র প্রকৃতই এলাকার জনমানসে সাড়া ফেলেছে । এলাকার মানুষজনের মধ্যে লক ডাউন মানার
বিশেষ প্রবনতা তৈরি হয়েছে। এভাবে এলাকার মানুষজন লকডাউন মেনে চললে ভাইসাস সংক্রমণ থেকে সবাই রক্ষা পাবে । ”

Related Articles

Back to top button
Close