fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিডিওর মানবিক মুখ কয়েক দিনর মধ্যে মিলল আদিবাসী পরিবারের বাড়ি

অসীম বেরা, চন্দ্রকোনা:  আমফান ঝড়ে উড়িয়েছে ঘরের ছাউনি , দুই পুত্রকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিন কাটাচ্ছেন আদিবাসী দম্পতি। আগন্তুকের মত দম্পতির পাশে এসে দাঁড়ালেন বিডিও। বিডিওর ব্যক্তিগত উদ্যোগে কোন সরকারি প্রকল্প ছাড়াই একাধিক মানুষের কাছে সাহায্য-সহযোগিতা নিয়ে শুরু হলো পাকার বাড়ি। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা ২ নম্বর ব্লকের বিডিও স্বাশত প্রকাশ লাহিড়ী মানবিক হয়ে দাঁড়ালেন ওই দম্পতির পাশে ।জানাযায় চন্দ্রকোনা ২ নম্বর ব্লকের কাঁয়াপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের রামগড় এলাকায় বৈদ্যনাথ মুর্মু ও ময়না মর্মূ র দুই পুত্র সন্তান নিয়ে সংসার। দিন আনা দিন খাওয়া পরিবারের মাথাগোঁজার একমাত্র সম্বল কেড়ে নেয় আমফান ঝড়।

ঝড়ের ফলে উড়েছে বাড়ির চাল, এমনকি বাড়ির অধিকাংশই মাটির দেওয়াল গিয়েছে ধ্বসে তাই দুই পুত্রকে নিয়ে আদিবাসী দম্পতির দিন কাটছিল দুশ্চিন্তায়। কি করবে কোথায় যাবে কিছুই জানেনা তারা, হঠাৎ তাদের পাশে এসে দাঁড়ালেন এলাকার বিডিও। জানায়ায় আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা দেখতে বেরিয়েছিলেন বিডিও তখনই তার নজরে আসে এমন ঘটনা। কিন্তু নজরে আসলেই কিবা হবে, কিছুই তো করার নেই, সরকারিভাবে বাড়ি পেতে সময় লেগে যাবে অনেক, তাই তিনি কোন উপায় না দেখে নিজের উদ্যোগে এলাকাবাসীদের কাছে সাহায্য সহযোগিতা চেয়ে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শুরু করে দিলেন বৈদ্যনাথের পাকা বাড়ি তৈরীর কাজ।

আরও পড়ুন: পুরুলিয়ায় লাফিয়ে বাড়ছে করোনা পজেটিভ, একদিনে আক্রান্ত ৬, মোট ৭

যদিও বৈদ্যনাথ ও তার স্ত্রী দাবি, বিডিও সাহেব আমাদের জন্য যা করলেন সারা জীবনে ভুলতে পারব না এরকম বিডিও একেবারেই হয়নি। এ বিষয়ে বিডিও স্বাশত প্রকাশ লাহিড়ী বলেন,ওই ব্যক্তি একেবারেই অসহায় পড়েছিল তাই যত দ্রুত সম্ভব ওনার বাড়ি তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে। বিডিওর এই এই কাজে খুশি এলাকাবাসী থেকে আদিবাসী পরিবারের সদস্যরা।

Related Articles

Back to top button
Close