fbpx
কলকাতাহেডলাইন

রাজ্যের বিরুদ্ধে জনস্বার্থ মামলা করার হুমকি জগন্নাথ সরকারের

অভিষেক আচার্য, কল্যাণী: করোনা সংক্রান্ত তথ্য গোপন, রেশন দুর্নীতি নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে জনস্বার্থ মামলা করার হুমকি দিলেন নদীয়ার রানাঘাট লোকসভার বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার। খাদ্য কেলেঙ্কারি নিয়ে সিবিআই তদন্ত ও চাইবেন বলে বুধবার রানাঘাটে এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানান তিনি।

এদিন রেশন দুর্নীতি নিয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেন ওই বিজেপি সাংসদ। রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে খাদ্য চুরি ও করোনায় মৃত্যুর হার কম দেখানোর অভিযোগ তোলেন তিনি। জগন্নাথ সরকার বলেন, মা মাটি মানুষ একটি খুন করার, মানুষের রক্ত চুষে খাবার ও চুরি করার সরকার। চোরের পাশে দাঁড়ায় তৃণমূল সরকার। তিনি আরও বলেন কদিন আগে আমি কাঠ চুরি ধরেছি। চাল চুরি প্রায় ধরা পড়ছে। তবু কোনো পদক্ষেপ নেই সরকারের। পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনের ওপরেও ক্ষোভ উগরে দেন তিনি। সাংসদ বলেন, পুলিশের কোনো ভূমিকা নেই। নবান্নের ভয়ে তাঁরা কোনো কাজ করেন না।

আরও পড়ুন: ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত বাণিজ্যে বাধা কেন? জানতে চেয়ে ফের রাজীব সিনহাকে চিঠি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিবের

মহামারীর প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকেই সরকার থেকে সবাইকে চাল দেওয়ার ঘোষণা করা হয়। তারপর থেকেই বিভিন্ন জেলা থেকে চাল চুরির ঘটনা উঠে আসতে থাকে শিরোনামে। নদীয়া জেলাও চাল চুরির ঘটনায় এগিয়ে। চাল চুরির অভিযোগ উঠেছে রেশন ডিলারের বিরুদ্ধে, রাইস মিলের মালিকও পেয়েছেন ‘চাল চোরের’ তকমা। শুধু তাই নয়, করোনা মৃত্যু সংখ্যা নিয়েও রাজনীতি করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, এই অভিযোগ বিরোধীরা বারংবার করে এসেছেন। সম্প্রীতি মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সম্পর্ক তিক্ততায় পরিণত হয়েছে।

ইতিমধ্যে গেরুয়া শিবিরের নেতা মন্ত্রী থেকে কর্মী সমর্থকরা মঙ্গলবার জেলাজুড়ে রেশন দুর্নীতি, করোনায় মৃত্যু সংখ্যা গোপন সহ বিভিন্ন ইস্যুতে বিক্ষোভ দেখিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে সাংসদ জগন্নাথ সরকার জনস্বার্থ মামলা করলে, কিংবা সিবিআই তদন্তের দাবি করলে তৃণমূল অনেকটাই কোণঠাসা হয়ে পড়বে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Related Articles

Back to top button
Close