fbpx
কলকাতাহেডলাইন

লক্ষ্য কর্ম সংস্থান, বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন থেকে বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর 

যুগশঙ্খ, ওয়েব ডেস্ক:তৃতীয় বার রাজ্যে ক্ষমতায় এসেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছিলেন, এবার তাঁর লক্ষ্য শিল্প ও কর্মসংস্থান৷ এবার বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন থেকেই মুখ্যমন্ত্রী জানালেন’ কর্ম সংস্থানই লক্ষ্য। কৃষি-শিল্প দুই ক্ষেত্রেই হাসি ফোটাতে চাই।

রাজ্যে কর্মসংস্থান বাড়াতে ও বাংলাকে শিল্প মানচিত্রে তুলে ধরতে তাই এই বাণিজ্য সম্মেলনকেই পাখির চোখ করছে রাজ্য প্রশাসন৷ সেক্ষেত্রে রাজ্যে আগত শিল্পপতিদের যাতে কোনও ধরনের সমস্যার মুখে পড়তে না হয়, মুখ্যমন্ত্রী সরাসরি রাজ্যপালকে বলেন, আমরা কেন্দ্রের তরফে সব রকম সহযোগিতা চাই। যাতে শিল্পপতিদের কেউ বিরক্ত না করেন সেটা দেখবেন।

দু বছর পরে এই বিজনেস সামিট করেছি। আমরা রাজ্য হিসাবে প্রথম এটি করছি। করোনা কালের পর এই বিশ্ব বাণিজ্য সম্মেলন হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলায় পরিকাঠামোর উন্নয়ন করেছি। শিক্ষার অধিকার। সামাজিক নিরাপত্তা নিয়ে কাজ হচ্ছে প্রতিনিয়ত। আমাদের নির্বাচিত মহিলা প্রতিনিধি ৩৮%। লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের মাধ্যমে আমরা মহিলাদের সাহায্য করি। সামাজিক পরিকাঠামোয় আমাদের স্বাস্থ্যসাথী কার্ড আছে৷ সোশ্যাল এমপাওয়ারমেন্ট নিয়ে আমরা কাজ করছি। এমএসএমই-তে বাংলা প্রথম। আমাদের নির্বাচিত প্রতিনিধি ৩৮ শতাংশ। মমতা আরও বলেন, স্কিল ডেভেলপমেণ্ট-এ বাংলা প্রথম। ১০ হাজার টাকা করে কৃষকদের দেওয়া হয়। দক্ষিণ পুর্ব এশিয়ার গেট-ওয়ে হল বাংলা।

এমএসএমই ও ই-টেন্ডারিং-য়ে বাংলা প্রথম। ২০০’র বেশি ইন্ডাস্ট্রি পার্ক হয়েছে বাংলায়। ওএনজিসি প্রকল্প চালু হয়েছে অশোকনগরে।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যে ২৪ ঘণ্টা বিদ্যুৎ পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে। দুর্গাপুজোকে হেরিটেজ তকমা দিয়েছে ইউনেস্কো। রাজ্যে পর্যটন শিল্পের বড় সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। লক্ষ শিল্পের কর্ম সংস্থান। বাংলায় ৪০ শতাংশ বেকারত্ব কমেছে।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, কৃষি-শিল্প দুই ক্ষেত্রেই হাসি ফোটাতে চাই।

Related Articles

Back to top button
Close