fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

চালককে মারধর করে বেঁধে রেখে চারচাকা গাড়ি ছিনতাই দুস্কৃতীদের

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়,বর্ধমান: চালককে মারধর করে বেঁধে রেখে চারচাকা গাড়ি ছিনতাই দুস্কৃতীদের। শনিবার গভীর রাতে একে বারে ফিল্মি কায়দায় গাড়ি ছিনতাইয়ের ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে রবিবার সকালে ভাতার থানার পুলিশ আমবোনা এলাকায় পৌঁছে চালক খুরশিদ আলমকে উদ্ধার করে। চালকের অভিযোগের ভিত্তিতে ভাতার থানার পুলিশ গাড়ি ছিনতাইয়ের ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। যদিও পুলিশ  এখনও দুস্কৃতীদের নাগাল পায়নি।

পুলিশকে ঘটনার বিবরণে চালক খুরশিদ আলম জানিয়েছে, পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের গোবিন্দপুর যাওয়ার কথা বলে শনিবার রাতে কলকাতার এসপ্ল্যানেড থেকে সুইফট ডিজায়ার গাড়ি বুক করে তিন যুবক। ওই গাড়ির চালক ছিল  খুরশিদ আলম। খুরশিদ বলেন, গোবিন্দপুর যাওয়ার পথে শক্তিগড়ের আমড়ায় যুবকরা জলযোগ সারে। তারপর তাদের নিয়ে তিনি সোজা আউশগ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। পথমধ্যে স্বমূর্তি ধরে ওই তিন যুবক। তারা  লোডেড রিভলবার বার করতেই গাড়ি চালক বুঝে যান যুবকরা আদতে দুস্কৃতী। খুরশিদ জানায়, আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে হিন্দিভাষী দুস্কতীরা তাকে ফের বর্ধমানের দিকে যেতে বাধ্য করে।

পথে ভাতারের আমবোনা মোড়ের কাছে জাতীয় সড়কের উপর দুস্কৃতীরা গাড়ি চালক খুরশিদ আলমকে ব্যাপক মারধোর করে তার কাছ থেকে গাড়ি, মোবাইল ফোন  ও  টাকা পয়সা কেড়ে নেয়। মারধর করার পর আহত গাড়ি চালক  খুরশিদের জামা খুলে নিয়ে সেখানে বেঁধে রেখে গাড়ি নিয়ে আউসগ্রামের গুসকরা অভিমুখে চপ্মট দেয়। গাড়ি চালক সারারাত সেখানেই পড়ে থাকেন। রবিবার সকালে এলাকার মানুষজন তাকে দেখতে পেয়ে ভাতার থানায় খবর দেয়। ভাতার থানায় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে গাড়ি চালক খুরশিদ আলমকে উদ্ধার করে।

আহত চালকের বাবা কেয়ামুদ্দিন খান জানিয়েছেন, ‘পুলিশের কাছে খবর পেয়ে তাঁরা ভাতায় থানায় পৌঁছান। সেখানেই  আহত অবস্থায় নিজের ছেলে খুরশিদকে দেখতে পান। কেয়ামুদ্দিন খান বলেন, ‘গাড়ি ছিনতাইয়ের ঘটনার সবিস্তার তাঁরা পুলিশকে জানিয়েছেন।’ চালকের  বন্ধু মহঃ সমীর বলেন, ‘গাড়ি নিয়ে বের হওয়ার আগে খুরশিদ তাকে সঙ্গে আসতে বলেছিল। কিন্তু গাড়ি ভাড়া করা  যুবকরা  তাড়া দেওয়ায় খুরশিদ একাই ভাড়া নিয়ে বেরিয়ে যায়।’ এদিন পুলিশ মাধ্যমে খবর পেয়ে তারা ভাতারে পৌঁছে সব ঘটনা জানতে পারেন।’ জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘চালকের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা রুজু করে তদন্ত  শুরু হয়েছে, গাড়িটি ট্র্যাক করার চেষ্টা চলছে।’

Related Articles

Back to top button
Close